যমুনায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন
Published : Thursday, 23 November, 2017 at 12:00 AM
ইসলামপুর (জামালপুর) প্রতিনিধি : ইসলামপুরে মোরাদাবাদ পাইলিংয়ের উপর দিয়ে যমুনা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলছে। এলাকাবাসী জানান, স্থানীয় চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে মান্না, আতিকুজ্জামান আতিক, সাইফুল, সোমন ও স্থানীয় ইউপি সদস্য জাহিদুলসহ ১৬-১৭ সদস্যবিশিষ্ট একটি সিন্ডিকেট  কুলকান্দি বাহাদুরাবাদ ফেরি ও নৌঘাট এলাকার পাইলিংয়ের উপর দিয়ে যমুনা নদী জেগে ওঠা চর থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে। এতে একদিকে সরকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে অপর দিকে হুমকির মুখে পড়েছে সাড়ে ৪০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত যমুনা তীর সংরক্ষণ প্রকল্প। নদী ভাঙনের হাত থেকে যমুনা তীরবর্তী অঞ্চলের দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে রক্ষাকল্পে সরকার যমুনা তীর সংরক্ষণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে। বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর সার্থকে জলাঞ্জলি দিয়ে গুঁটিকয়েকে প্রভাবশালী ব্যক্তি প্রতিনিয়ত প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে এই প্রকল্প এলাকা থেকে অবাধে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করছে। : যমুনা তীর সংরক্ষণ প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে যমুনা নদী তীরবর্তী অঞ্চলের মানুষের প্রায় অর্ধশতাধিক বছরের কান্নার অবসান হয়েছে। স্থানীয় কৃষক হাফিজুর রহমান, কাশেম ও কালা চাঁনসহ অনেক কৃষক জানান, প্রতি বছরই বন্যার পানি নেমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে যমুনার জেগে ওঠা প্রায় ৭০০ একর বালু চরে চরবাসী পাট, রসুন, বাদাম, ভুট্টা, গো-খাদ্যসহ বিভিন্ন ফসলের আবাদ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। কিন্তু কয়েক বছর ধরে স্থানীয় বালুদস্যু চক্র বন্যার পানি কমে যাওয়ার পরই যমুনায় জেগে ওঠা চরে ড্রেজার ও নৌকা ভাসিয়ে বালু উত্তোলন করে আসছে। ফলে জেগে ওঠা চরে আর ফসল উৎপাদন করা সম্ভব হচ্ছে না। এ ব্যাপারে স্থানীয় চেয়ারম্যান ইফতেখার আলম বাবুল জানান, আমি কোনো বালু ব্যবসায়ীর সঙ্গে জড়িত নই, আমি ও স্থানীয় এমপি বালু ব্যবসা বন্ধের জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছি। কিন্তু কয়েকজন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সদস্য বালু তোলার পাঁয়তারা করছেন। তিনি আরো জানান, বালু তোলা বন্ধ না হলে সাড়ে ৪০০ কোটি টাকার প্রকল্পের ক্ষতি হবে। এ ব্যাপারে পাথর্শী ইউয়িন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সুরুজ্জামান জানান, অবৈধভাবে বালু তোলার ব্যাপারে ইতিমধ্যে তিনি ১৬ জনের একটি তালিকা তৈরি করেছেন। তিনি এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন বলে ফোনে জানান। এলাকাবাসী জরুরি ভিত্তিতে অবৈধ উত্তোলন করা বালুগুলো জব্দসহ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রশাসনের কাছে। এ ব্যাপারে ইসলামপুর উপজেলা নবাগত নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর  রহমান জানান, অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে খুব শিগগিরই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। এতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হবে বলে বিশ্বাস করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
26077 জন