কুড়িগ্রামে এসএসসি’র ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি নেয়ার অভিযোগ
Published : Sunday, 26 November, 2017 at 12:00 AM
স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম : কুড়িগ্রামে এসএসসি পরীক্ষায় অতিরিক্ত ফি নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায় স্কুল ভেদে ২ হাজার টাকা থেকে ৩ হাজার টাকা পরীক্ষার ফি আদায় করা হয় চলতি এসএসসি পরীক্ষার ফরম ফিলাপে। সরকারের বোর্ড ফি সর্বোচ্চ এক হাজার ২০০টাকা। অতিরিক্ত টাকা কোথায় যাচ্ছে তার কোন হদিস নেই। পরীক্ষার ফরম ফিলাপে অতিরিক্ত ফি নিয়ে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। কিন্তু সন্তানদের ভবিষ্যতের ফলাফলের কথা চিন্তা করে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না। : ভুরুঙ্গামারী উপজেলার বাঘভান্ডার দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হারুন জানায়, মানবিক বিভাগে সে ২ হাজার ২০০টাকায় ফরম ফিলাপ করতে পেরেছে। রাজারহাট উপজেলার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান বিভাগে ২ হাজার ৯শ টাকা নেয়া হচ্ছে বলে দাবি করেন এক পরীক্ষার্থীর অভিভাবক খলিলুর রহমান। অনেকে অভিযোগ করলেও নাম প্রকাশ করতে রাজি নন তাদের সন্তানের ভবিষ্যতের কথা ভেবে। কারণ শিক্ষকদের রোষানলে পড়লে পরীক্ষায় ক্ষতি হতে পারে এমন আশঙ্কা অনেকের। কুড়িগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খালিদ সিদ্দিকী অতিরিক্ত ফি নেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমরা ১৮০০/১৭০০টাকা নিচ্ছি। বোর্ডের ফি কত তা সঠিক বলতে না চাইলেও স্বীকার করেন সামান্য বেশি নেয়া হচ্ছে। যা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে অনেক বেশি নেয়া হয়। রিভারভিউ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহির উদ্দিন বলেন, বোর্ডের নানান ধরনের ফি দিতে প্রায় এক হাজার ৮০০টাকা লাগে। আমরা এর থেকে ২/৩শ’ টাকা বেশি নেই প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন ব্যয় বাবদ। খলিলগঞ্জ স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ রীতা দেব বলেন, ফরম ফিলাপে ২৩০০/২৪০০টাকা নেয়া হয়। এ থেকে ৮৮ জন পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে আয় হয় প্রায় ২ লাখ টাকা। এর থেকে প্রথম দফায় বোর্ডকে দিতে হয়েছে ৯৭ হাজার টাকা। এ ছাড়া কেন্দ্র ফি দিতে হয়েছে। সব খরচ বাদ দিলে প্রতিষ্ঠানের ফান্ডে জমা জয় মাত্র ৫০ হাজার টাকা। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যে কোনো আশার আলো দেখতে পান?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
24931 জন