ধমক দিয়ে সরকারি চাকুরেদের সমাবেশে আনা হয়েছে : রিজভী
Published : Sunday, 26 November, 2017 at 12:00 AM, Update: 25.11.2017 11:03:29 PM
দিনকাল রিপোর্ট : শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণকে ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃতি দেয়ায় গতকাল শনিবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আনন্দ শোভাযাত্রায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অংশগ্রহণের নির্দেশনাকে অন্যায় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। গতকাল সকালে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ক্যাবিনেট সেক্রেটারি লিখিত অর্ডার দিয়েছেন সকল সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে উপস্থিত হতে হবে। প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য রাখবেনÑএটা কোন দেশে আছি? একটি রাজনৈতিক বিষয়ে সমাবেশ বলি, সংবর্ধনা বলি এখানে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আপনি চিঠি দিয়ে, ধমক দিয়ে তাদেরকে সেখানে পাঠাচ্ছেন, এটা অন্যায়। এটা কিসের দেশ? এটা গণতান্ত্রিক দেশ নয়, এটা একদলীয় দুঃশাসনের দেশ। আবার বাকশাল নতুন চমক নিয়ে, নতুন জামা পরে, নতুন পোষাক পরে শেখ হাসিনার অধীনে নব জন্ম হলো বাকশাল এবং সরকারি অফিসারদের পলিটিক্যাল সভায় উপস্থিত হতেই হবে। রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঢাকাস্থ পিরোজপুর জাতীয়তাবাদী ফোরামের উদ্যোগে জেলা সভাপতি গাজী নুরুজ্জামান বাবুলের মুক্তির দাবিতে এই মানববন্ধন হয়। : সংগঠনের সভাপতি হিরু রহমান হিরন মোল্লার সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন, কেন্দ্রীয় নেতা মীর সরফত আলী সপু, শাহজাহান মিলন, রফিকুল ইসলাম মাহতাব, পিরোজপুর জেলা সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ক্যাবিনেট সেক্রেটারির নির্দেশ এটা সন্ত্রাসী নির্দেশ। এটা কোনো আইনি নির্দেশ নয়। আইনি নির্দেশ নয় বলে জোর করে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের  জনসভায় যোগদান করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। : কোনো গণতান্ত্রিক দেশের সরকারি কর্মকর্তাদের এভাবে কোনো রাজনৈতিক সভায় যোগদান করতে হয় না। এখানে এমন একটি অবস্থা যে, কোর্ট আমার, প্রশাসন আমার, পুলিশ আমার। আওয়ামী লীগের বাইরে কোনো কথা নেই, কোনো রঙ নেই। নিয়ম বলে কিছু নেই। আইন একটা শেখ হাসিনার আইন, এখানে অন্য কোনো আইন চলবে না। ১৯৭৫ সালের জানুয়ারিতে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা বাকশাল প্রতিষ্ঠার প্রসঙ্গ টেনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে রিজভী বলেন, আপনার বাবা বাকশাল করেছিলেন। তখন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, সেনাবাহিনী, বিডিআর, পুলিশের কর্মকর্তাদের যোগদান করতে হতো। তার কন্যা শেখ হাসিনার আমলে আবার আজকে নতুন বাকশাল দেখছি, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পলিটিক্যাল মিটিংয়ে যেতে হচ্ছে। না হয় তাদের চাকরি থাকবে না, তাদের বেতন কেটে নেয়া হবে। জোর করে, জুলুম করে মানুষের হৃদয় জয় করতে পারবেন না প্রধানমন্ত্রী। আপনি এটা জুলুম করছেন। একাত্তরের ৭ মার্চ যে ভাষণে শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালির স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন, সেই ভাষণ বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে ইউনেস্কোর মেমোরি অফ দা ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্টারে যুক্ত হয়েছে। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যে কোনো আশার আলো দেখতে পান?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
24911 জন