বিয়ের প্রলোভনে প্রতিবন্ধী অন্তঃসত্তা থানায় মামলা
Published : Monday, 27 November, 2017 at 12:00 AM
গাবতলী (বগুড়) প্রতিনিধি : বগুড়ার গাবতলীতে বিয়ের প্রলোভনে প্রতিবন্ধি মেয়েকে ধর্ষনে কারনে অন্তঃসত্তা হওয়ার কারনে ২ সন্তানের জনক আব্দুল (৪০)’র বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। থানা সুত্রে জানাযায়, সোনারায় ইউনিয়নের খুঁপি উত্তর পাড়া গ্রামের পিতা বাদী হয়ে গত ২৪ নভেম্বর থানায় দায়েরকৃত মামলায় বলেছেন, বাদী তার ছেলেকে নিয়ে ব্যাবসার কাজে বাড়ীতে না থাকার কারনে এবং তার স্ত্রী মারা যাওয়ায় ১৭ বছরের একমাত্র প্রতিবন্ধি মেয়েকে বাড়ীতে একাই রেখে যেত। এই সুযোগে পার্শ্বের বাড়ীর আব্দুস সামাদ ওরফে ফকিরা মোল্লার ছেলে ২ সন্তানের জনক আব্দুল মিথ্যা বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ঐ প্রতিবন্ধিকে চলতি ২০১৭ সালের ২০ এপ্রিল প্রথমবার জোর পুর্বক ধর্ষন করে। একথা কাউকে না বলতে সে ঐ প্রতিবন্ধিকে চুপ থাকতে বলে। এভাবে প্রতিবন্ধির সরলতার সুযোগ নিয়ে একাধিকবার বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষন করে। এক পর্যায়ে এই প্রতিবন্ধির শারিরক পরিবর্তন হলে তার পিতা গ্রামের লোকজনের সাথে পরামর্শ করে ডাক্তারের কাছে নিয়ে পরীক্ষা করলে অন্তঃসত্তার বিষয়টি নিশ্চিত হয়। অন্তঃসত্তা হয়ার বিষয়ে বাদী তার প্রতিবন্ধি মেয়ের নিকট থেকে জানতে পেরেছে পার্শ্বের বাড়ীর আব্দুস সামাদ ওরফে ফকিরা মোল্লার ছেলে সম্পর্কের চাচা ২ সন্তানের জনক আব্দুল এই ঘটনা ঘটিয়েছে। বাদী গ্রামের লোকজন নিয়ে আব্দুল ও তার পিতা মাতাকে বিষয়টি জানালে তারা বিয়ের প্রলোভনে সময় ক্ষেপন করে। এই প্রতিবন্ধি বর্তমানে ৭ মাসের অন্তঃসত্তা বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে। ২৪ নভেম্বর গাবতলী মডেল থানায় আব্দুলকে একমাত্র আসামী করে প্রতিবন্ধিকে ধর্ষন ও বিয়ের প্রলোভনে অন্তঃসত্তা করার অপরাধে পিতা বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। এব্যাপারে ওসি খায়রুল বাসারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি, থানায় মামলা হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আসামীকে গ্রেফতার করার জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন, রংপুর সিটি নির্বাচন স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ হবে। আপনিও কি তেমন আশা করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
14906 জন