গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ॥ রবিবার সারাদেশে বিক্ষোভ
খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল
Published : Friday, 1 December, 2017 at 12:00 AM, Update: 30.11.2017 11:30:52 PM
খালেদা জিয়ার জামিন বাতিলদিনকাল রিপোর্ট : বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বামদলগুলোর হরতাল চলাকালে নিরাপত্তাজনিত কারণে আদালতে হাজির হতে না পারায় বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম  খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। এ সময় বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবীরা সময়ের আবেদন করলে, আদালত তা নামঞ্জুর করেন। একই সঙ্গে আত্মপ সমর্থনের বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ টুকুও বাতিল করেছেন আদালত। এছাড়া আগামী ৫, ৬ ও ৭ ডিসেম্বর যুক্তিতর্কের জন্য দিন নির্ধারণ করেছেন আদালত। : গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ জজ ড. আখতারুজ্জামানের আদালতে বেগম খালেদা জিয়ার আত্মপ সমর্থন করে বক্তব্য দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু হরতালের কারণে তিনি আদালতে যেতে পারেননি। বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবী জাকির হোসেন ভূঁইয়া জানিয়েছেন, হরতালে নিরাপত্তার কারণে বেগম খালেদা জিয়া আজ (বৃহস্পতিবার) সময় অনুযায়ী আদালতে হাজির হতে পারেননি। তাই আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেছেন। : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন আদালতকে জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া একটি বৃহত্তর রাজনৈতিক দলের প্রধান। নিরাপত্তাজনিত কারণে তিনি বাসা থেকে বের হতে পারছেন না। এ সময় আদালত বলেন, আমরা সবাই উপস্থিত হতে পেরেছি। তিনি পারলেন না কেন? দুপুর ১২টা পর্যন্ত আমরা উনার জন্য অপো করেছি। এ সময় : আইনজীবী বলেন, আপনি যদি অনুমতি দেন, দুপুর ২টার পর তিনি আদালতে হাজির হবেন। : বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবীর বক্তব্যের বিরোধিতা করেন বিপরে আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল। এ পর্যায়ে আদালত বেগম খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল করে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন। পরে আগামী ৭ ডিসেম্বর পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেন। এর আগে গত ১২ অক্টোবর সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য লন্ডনে থাকাবস্থায় একই আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিলেন। দেশে ফিরেই তিনি আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন। এর পর থেকে প্রতি সপ্তাহেই তিনি আদালতে হাজিরা দিয়ে আসছিলেন। : এদিকে বেগম  খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশের কর্মসূটি ঘোষণা করেছেন বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির ঘটনাকে সরকারের নিষ্ঠুর ও বন্য আক্রোশের বহিঃপ্রকাশ বলে মন্তব্য করেছে। : গতকাল বৃহস্পতিবার  বিকেলে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, সরকারের নীল নকশার অংশ হিসেবে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে এই গ্রফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। সরকারের বন্য আক্রোশের কারসাঁজিতে এই গ্রেফতারি আদেশ জারি হয়েছে। এই আদেশ জারির নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একইসাথে মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি।  সম্মেলনে  তিনি  আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করেন। : রুহুল কবির রিজভী বলেন, বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বামদলগুলোর ডাকা হরতাল থাকায় নিরাপত্তাজনিত কারণে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া গতকাল (আজ )আদালতে হাজির হতে না পারায়  তার বিরুদ্ধে  এই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা আদালতে হাজির হয়ে প্রথমে এই বিষয়টি উল্লেখ করে সময় চেয়ে আবেদন জানান। কিন্তু আদালত সময় চেয়ে করা আবেদন নামঞ্জুর করেন। পরে আইনজীবীরা পুনরায় আদালতে আবেদনে বলেন  দুপুরের পর হরতাল শেষ হলে (ম্যাডাম) বেগম খালেদা জিয়া আদালতে আসতে চান। এই বিষয়ে আদালতের অনুমতি প্রয়োজন। ম্যাডামের আইনজীবীদের এই আবেদনটিও আদালত আবেদন আমলে নেনি। আদালত আইনজীবীদের মাধ্যমে করা আবেদন নাকচ করে দিয়ে বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে  গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে। : রুহুল কবির রিজভী বলেন, এই ধরনের আচরণ ন্যায় বিচারের পরিপন্থী ও ন্যাক্কারজনক। এই ঘটনায় সরকারের প্রত্য মদদে হয়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে বর্তমান সরকার প্রধানের পাশবিক জিঘাংসার প্রতিফলন এটি। জাতীয়তাবাদী শক্তির বিরুদ্ধে হিংসাপরায়ণ সরকারের বিভীষিকাময় আস্ফালন। এ আদালতে বেগম খালেদা জিয়া যে ন্যায় বিচার পাবেন না, এ  গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর তা আরো পরিস্কার হলো। : বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের কর্মসূচি: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে হয়রানীমূলক মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে বিএনপি’র উদ্যোগে আগামী ০৩ ডিসেম্বর  রবিবার দেশব্যাপী সকল জেলা সদর ও মহানগরে এবং ঢাকা মহানগরীর থানায় থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হবে। ছাত্রদলের কর্মসূচিঃ বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে  গ্রেফতারী পরোয়ানা জারিন প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি রাজিব আহসান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ একদিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন। ছাত্রদলের  আজ শুক্রবার দেশের সকল জেলা, মহানগর ও বিশ্ববিদ্যালয়ে বিােভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মসূচিঃ বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারীর প্রতিবাদে আগামী ২ ডিসেম্বর শনিবার দেশব্যাপী সকল জেলা ও মহানগরে  এবং আগামী ৩ ডিসেম্বর রবিবার সকল থানা এবং পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলকে বিােভ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল। জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু এবং সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূইয়া জুয়েল এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। : : : : : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

টিআইবি নেতৃবৃন্দ বলেছেন, দেশের বিচার ব্যবস্থা উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় রয়েছে । আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
13158 জন