পিডিবির অবহেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মর্মান্তিক মৃত্যু
একটি অসহায় পরিবারের দায়িত্ব নেবে কে?
Published : Monday, 4 December, 2017 at 12:00 AM
সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি : ফরিদপুরের মধুখালী থানার কামারখালীর আশা ব্র্যাঞ্চের (এনজিও) অফিসের  টিনের ঘরের উপরে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে মর্মান্তিকভাবে মৃত্যুবরণ করতে হয়েছে এনজিওর কামারখালীর সহকারী কর্মকর্তা মো. নাসিরুল ইসলামকে (নবীর)। তার মৃত্যুর পর সহায়-সম্বলহীন পরিবারটি এখন মানবেতর জীবনযাপন করছে। নিয়তির নির্মম পরিহাস কে জানত ১১, ৭ ও ২ বছর বয়সী ৩টি মেয়ে সন্তানকে পিতাহারা হতে হবে কিশোর বয়সেই আর স্বামী হারা হতে হবে স্ত্রীকে। ঘটনার দিন সকাল সাড়ে ৬টায় সময়ে রাত না পোহাতেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়তে হবে তাকে? জানা যায়, ঘুমঘুম চোখে যখন মানুষের কোলাহল কানে পৌঁছল তখন তিনি দৌড়ে এসে ঘরের লোহার দরজা খুলবার জন্য স্পর্শ করতেই বিদ্যুতায়িত হয়ে মারা গেলেন। পরে জানা গেল টিনের ঘরের উপর দিয়ে যাওয়া পিডিবির ৩৩০০ হাজার ভোল্টেজের মেইন লাইন থেকে বেরিয়ে আসা ১১ হাজার ভোল্টেজের তার ছিঁড়ে পড়ে পুরো বাড়ির টিনের চালসহ লোহার গ্রিল, দরজা পর্যন্ত বিদ্যুতায়িত হওয়ার প্রেক্ষিতে স্পর্শ করা মাত্রই ইলেকট্রোমোটিভ তাকে মৃত্যুর দরজায় পাঠিয়ে দিয়েছে। নবীরের এ অকাল মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে আর বিদ্যুৎ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপর ক্ষিপ্ত হয়েছেন সাধারণ মানুষ। মো. নাসিরুল ইসলাম নবীরের বাড়ি মাগুরা জেলার মহম্মদপুর থানার ধোয়াইল গ্রামে। তার বাবার নাম মৃত গোলাম মোস্তফা। তিনি স্ত্রী ও ৩ সন্তান নিয়ে কামারখালীর আশা অফিস কাম-রেসিডেন্সে থাকতেন আর ১৩ (বছর) ধরে চাকরি করতেন সেখানে। তার মৃত্যুর পর সমবেদনাও জানায়নি কেউ। নিয়মমাফিক অপমৃত দেখিয়ে লাশ দাফন করা হয়েছে কিন্ত স্ত্রী আর সন্তানের আহাজারিতে ভারি হয়ে আছে ধোয়াইল গ্রামের বাতাস। অবুঝ সন্তান কবরের পাশে বসে কান্নার রোল তুলছে। স্বজনদের প্রশ্ন, এ জীবন হারানোর দায়ভার নেবে কে আর এ শিশুদের ভবিষ্যৎ কি? এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে তার না পাল্টানোর কারণে টেম্পার কমে গিয়ে সঞ্চালন লোড নিতে না পেরে তারটি ছিঁড়ে পড়েছে। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

বিএনপি স্থায়ী কমিটি সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, জনসমর্থন না থাকায় নির্বাচন নিয়ে আতঙ্কে আছে সরকার। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
1492 জন