মাকে ছুঁতে দিল না কাঁটাতারের বেড়া
Published : Monday, 4 December, 2017 at 12:00 AM
রানীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি : ‘মা, ওমা তোমাকে যে খুব ছুঁতে ইচ্ছে করছে, একটু এ পাশে আসো না’Ñ মেয়ের এমন আকুতি শুনে মায়ের মনটিও কাঁদছিল তবে বাদ সাধে ওই কাঁটাতারের বেড়া। মা-মেয়ে কেউ কাউকে ছুয়ে দেখতে পারছেন না। কারণ, মা-মেয়ের মাঝখানে রয়েছে প্রায় ১০ ফিটের দূরত্বের কাঁটাতারের বেড়া। ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল কোচল ও হরিপুর উপজেলার চাপসা সীমান্তে গত শুক্রবার ভারত ও বাংলাদেশের  মানুষের মিলন মেলায়  মা-মেয়ের ছুঁয়ে দেখার হৃদয়বিদারক ঘটনাটি কাছ থেকে দেখেন এ প্রতিবেদক। মেয়ে মিনতি রানী পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলা থেকে আর মা  ভারতের আসাম থেকে। মেয়েকে বাংলাদেশে বিয়ে দিয়েছেন প্রায় ১৫ বছর আগে। মা-মেয়ের দেখা প্রায় এই সময়ে হয়ে থাকে। তবে সেটা দেখা হয় আর খোঁজ-খবর নেয়া হয় মাত্র কিন্তু মা-মেয়ের একসঙ্গে হওয়ার সুযোগ হয় না। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, প্রতি বছর পাথর কালীর মেলা বিজিবি ও বিএসএফের সম্মতিতে এই সাক্ষাতের সুযোগ সৃষ্টি হয়। সাক্ষাতে দুই পারের আত্মীয়-স্বজনদের কাঁটাতারের বেড়া তাদের আলাদা করে রাখলেও আবেগ পৌঁছে যায় সীমান্ত পেরিয়ে। জানা যায়, বাংলাদেশের ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, রংপুর এবং ভারতে কোচবিহার, আসাম, দার্জিলিং, শিলিগুড়ি, জলপাইগুড়ি, কলকাতাসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে বাইসাইকেল, অটোরিকশা, মাইক্রোবাস, মিনিবাসযোগে মেলা স্থলে আসেন লাখো মানুষ। স্থানীয়রা জানান, ভোর থেকে দুই দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ সীমান্তে আসেন। দীর্ঘদিন বিচ্ছিন্ন থাকা একে অপরের সঙ্গে মিলিত হওয়ার এ সুযোগ হাতছাড়া করতে চান না কেউ। প্রতি বছর দুই দেশের স্বজনদের এ মিলন মেলা এখানে জন্ম দেয় এক বিরল দৃশ্যের। হাজার হাজার মানুষ কথা বলেছেন এই দিনে তাদের স্বজনদের সঙ্গে। দুই দেশের বিভিন্ন স্থানে থাকা সাধারণ মানুষ টাকা-পয়সার অভাবে পাসপোর্ট ও ভিসা করতে পারেন না। তাই তারা এই দিনটির অপেক্ষায় থাকেন। সারা বছর দুই দেশের মানুষ অপেক্ষা করেন এই দিনটির জন্য। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আগে থেকেই জানিয়ে দেন স্বজনরাÑ কে কোথায় দেখা করবেন। ভারতীয়রা কাঁটাতারের পাশে এলে সেখানে বাংলাদেশেরও লাখো নারী-পুরুষ সমবেত হন। মল্লিকা রানী ভারতীয় সীমান্তে ও শাশুড়ি টেপা রানী বাংলাদেশ সীমান্তে। নাতি-নাতনি সবাই সবার সঙ্গে কথা বলছেন কান্নাজড়িত কন্ঠে। টেপা রানী  বলেন, ৬ বছর পর জামাই ও মেয়ের দেখা পেলাম। একে অপরকে জড়িয়ে ধরার ইচ্ছা থাকলেও পারছি না। বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে মাঝখানে কাঁটাতারের বেড়া। ইচ্ছে হচ্ছিল একটু ছুঁয়ে দেখার। কিন্তু ছুঁতে পারিনি। জড়িয়ে একটু চিৎকার করে কান্না করি তবে হয়তো দীর্ঘদিনের জমে থাকা কষ্টগুলো থেকে একটু রেহাই পেতাম, কথাগুলো বলছিলেন ভারতের মাকরহাটে থাকা ছোট খালা জোসনাকে দেখতে আসা ফুলবাড়ীর রফিকুল ইসলাম। পাথর কালীর মেলার সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নগেন কুমার পাল জানান, কৃষকের ধান মাঠে থাকার কারণে এক সপ্তাহ পিছিয়ে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

বিএনপি স্থায়ী কমিটি সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, জনসমর্থন না থাকায় নির্বাচন নিয়ে আতঙ্কে আছে সরকার। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
1435 জন