শিশু শিক্ষক ও যুবকসহ বিভিন্নস্থানে ৬ জন খুন
Published : Monday, 4 December, 2017 at 12:00 AM
দিনকাল ডেস্ক : চট্টগ্রামে ছুরিকাঘাতে যুবক, শ্রীপুরে শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা ও ধর্মপাশায় জমি নিয়ে বিরোধে শিক্ষক খুন, নরসিংদীতে গণপিটুনিতে ১ জন। বগুড়ার সাত মাথায় ছিনতাইকারীর হাতে স্কুল ছাত্র খুন। চট্টগ্রামে আ’লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা। : চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম অফিস জানায়, চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা সদরের জলদী পৌর এলাকায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে এক যুবক খুন হয়েছেন। শুক্রবার রাত ১টার দিকে এ ঘটনার পরদিন শনিবার ভোরে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়েছে। নিহতের নাম দিদারুল আলম (২৮)। নিহত দিদার পৌর ৪নং ওয়ার্ডের নজির আহমদের ছেলে। বাঁশখালী থানার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, ১০-১২ দিন পূর্বে দিদারুল আলমের সাথে প্রতিবেশী আব্দুল মালেকের ঝগড়া হয়। পরে তার সামাজিকভাবে মীমাংসাও হয়ে যায়। কিন্তু প্রতিপক্ষ এর রেষ ধরে গতকাল রাতে দিদারকে ফোন করে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই হামিদ বলেন, রাতে ছুরিকাঘাতে রক্তাক্ত অবস্থায় বাঁশখালী থেকে এক যুবককে হাসপাতালে আনার পর আজ ভোরের দিকে তার মৃত্যু হয়েছে। নিহতের লাশ মর্গে রাখা হয়েছে। : শ্রীপুর : শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি জানান, গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের উত্তরপাড়া গ্রামে এক মাদ্রাসা ছাত্রী শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল রবিবার বেলা ১২টায় শ্রীপুর থানাপুলিশ নিহত শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। নিহত মৌসুমী আক্তার (৮) উপজেলার গাজীপুর উত্তরপাড়া গ্রামের কুদ্দুস আলীর মেয়ে। সে স্থানীয় গাজীপুর সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ইবতেদায়ী শাখার প্রথম শ্রেণির ছাত্রী। তার বাবা ভিক্ষাবৃত্তির মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করেন। : নিহতের মা রমিজা খাতুন জানান, ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার আব্দুল আউয়ালের ছেলে মনিরুজ্জামানের সাথে তার বোনের মেয়ে লাকী আক্তারের সাথে বেড়ানোর সূত্র ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মনিরুজ্জামান জয় গাজীপুর গ্রামের নানা কদম আলী বাড়িতে থেকে পড়াশোনা করত। : এদিকে পরিবারের লোকজন তাদের প্রেমের সম্পর্ক জেনে যাওয়ায় কয়েকদিন আগে লাকী আক্তারকে অন্যত্র পাঠিয়ে দেন পরিবারের লোকজন। মনিরুজ্জামান কয়েকদিন যাবৎ লাকী আক্তারের সন্ধানের জন্য মৌসুমীকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। : নিহতের ভাই ইদ্রিস আলী বলেন, বাড়ির পাশেই গাজীপুর বাজারে রাতে এক বাউল গানের অনুষ্ঠান ছিলাম আমি। এদিকে তার মা স্বজনদের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ায় বাড়িতে কেউ না থাকায় মৌসুমী তার ঘরে একা ঘুমাচ্ছিল। বাউল গান শুনে ভোররাতে বাড়িতে এসে দেখেন ঘরের দরজা খোলা। এ সময় ঘরে ঢুকে মৌসুমীর রক্তাক্ত নিথর দেহ দেখেন ইদ্রিস আলী। : গাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুস সালাম জানান, সংবাদ পেয়ে নিহতের বাড়িতে গিয়ে এ বিষয়ে শ্রীপুর থানায় খবর দেয়া হয়। পরে দুপুরের দিকে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। : শ্রীপুর থানার এসআই এখলাসুর রহমান জানান, প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যার আলামত পাওয়া গেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। : ধর্মপাশা : ধর্মপাশা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি জানান, সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় বাড়ির সীমানা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গতকাল শুক্রবার সকালে প্রতিপক্ষের লোকজনের লাঠির আঘাতে আবু তৌহিদ অরফে জুয়েল (৩৬) নামে এক কলেজশিক্ষক খুন হয়েছেন। : নিহত কলেজশিক্ষক আবু তৌহিদ অরফে জুয়েল কাকিয়াম গ্রামের বাসিন্দা সাবেক ইউপি সদস্য মৃত রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে। তিনি পাশের জামালগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। : এদিকে পুলিশ ঘটনার পরপরই গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পাশের বারহাট্টা উপজেলাধীন রানিগাঁও নামক হাওরে অভিযান চালিয়ে প্রতিপক্ষের আব্দুর রাজ্জাক (৪০) ও হেলিম মিয়া (৫০) নামে দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে।    : পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কাকিয়াম গ্রামের মৃত রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে কলেজশিক্ষক আবু তৌহিদ অরফে জুয়েলের সাথে তারই প্রতিবেশী বাদশাগঞ্জ পাবলিক হাইস্কুলের দপ্তরী আব্দুর রাজ্জাকের বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে শুক্রবার সকালে কলেজশিক্ষক জুয়েল তার বিরোধপূর্ণ ওই জায়গায় একটি টিনের ঘর নির্মাণের কাজ শুরু করলে প্রতিপক্ষের আব্দুর রাজ্জাক ও একই গ্রামের গাজী শামছুর রহমানের নেতৃত্বে ৫-৬ জন লোক ঘটনাস্থলে এসে কলেজশিক্ষক জুয়েলকে ওই স্থানে ঘর বাঁধতে নিষেধ করেন। পরে এ নিয়ে উভয় পক্ষের লোকজনের কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষের লোকজনের উপর্যুপরি লাঠির আঘাতে কলেজশিক্ষক আবু তৌহিদ জুয়েল গুরুতর আহত হয়ে ঘটনাস্থলেই পড়ে যান। পরে বাড়ির লোকজন সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে দ্রুত ধর্মপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। : এ ব্যাপারে ধর্মপাশা থানার ওসি সুরঞ্জিত তালুকদার বলেন, নিহত কলেজশিক্ষকের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ওইদিন বিকেলে সুনামগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পরপরই এর সাথে জড়িত দুজনকে পাশের বারহাট্টা উপজেলাধীন রানিগাঁও নামক একটি হাওরে অভিযান চালিয়ে আটক করা হয়। তবে এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

বিএনপি স্থায়ী কমিটি সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, জনসমর্থন না থাকায় নির্বাচন নিয়ে আতঙ্কে আছে সরকার। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
1503 জন