নওগাঁয় ঋণের জালে দিশেহারা নিম্নবিত্তরা
Published : Monday, 4 December, 2017 at 12:00 AM, Update: 03.12.2017 11:08:36 PM
নওগাঁয় ঋণের জালে দিশেহারা নিম্নবিত্তরাদিনকাল রিপোর্ট : নওগাঁর গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর একটি বড় অংশ ঋণ নিচ্ছেন একাধিক সংস্থা থেকে। এক সংস্থার ঋণের কিস্তি শোধ করছেন আরেক সংস্থার টাকায়। এমনকি কিস্তির টাকা দিতে না পারায় ঘটছে আত্মহত্যার মতো ঘটনাও। অনুসন্ধান বলছে, কৌশলগত কারণে নারীদেরই ঋণ দেয় স্থানীয় এনজিওগুলো। অথচ ঋণের টাকা পরিশোধের ক্ষমতা তার আছে কি না, তা খতিয়ে দেখা হয় না। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সংস্থাগুলোর মুনাফা অর্জনের প্রতিযোগিতাই এজন্য দায়ী। : নওগাঁর পোরশা উপজেলার ললা পাড়ার সুফিয়া খাতুন। শুধু পরিবার চালাতে ঋণ নিয়েছেন ৫টি সংস্থা থেকে। এখন সেই ঋণ পরিশোধে কিস্তি চালাচ্ছেন খেয়ে না খেয়ে। পাশের বাড়ির সামা খাতুনের গল্পটা আরও করুণ। স্বামীহারা এই নারী ঋণ নিয়েছেন তিনটি এনজিও থেকে, যার কিস্তি দিচ্ছেন ভিক্ষা করে। নওগাঁর গ্রামগুলোতে এরকম ঘটনা এখন নিয়মিত। অনুসন্ধান বলছে, কৌশলগত কারণে মূলত নারীদেরই ঋণ দেয় স্থানীয় এনজিওগুলো। কিন্তু যাকে ঋণ দেয়া হচ্ছে,  তা পরিশোধের ক্ষমতা তার আছে কি না, খতিয়ে দেখা হয় না। অথচ সময়মতো কিস্তি দিতে না পারলে অপমান ও নানাবিধ নির্যাতনের অভিযোগও ওঠে। আবার কিস্তি পরিশোধ করতে না পেরে আত্মহত্যার মতো ঘটনাও ঘটেছে এই জেলায়। নিয়ম অনুযায়ী, ঋণ দেয়ার আগে গ্রাহক ও  জামানতকারীর সামর্থ্য, আগে ঋণ নিয়েছেন কি না এবং ঋণের অর্থ কী কাজে লাগানো হবে, তা বিস্তারিত জানার কথা ঋণদানকারী সংস্থার। কিন্তু তা মানা হয় না। বরং একাধিক সংস্থা থেকে ঋণ নিলেও, কোনো সমস্যা নেই বলে জানালেন এনজিওগুলোর কর্তাব্যক্তিরা। যদি ঋণ দেয়ার এমন প্রবণতা বন্ধে নীতিমালার তাগিদ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। ক্ষুদ্রঋণ যাতে সত্যিকারেই গ্রামীণ এলাকার গরিব মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখে, সেজন্য এনজিওগুলোর সদিচ্ছার পাশাপাশি সরকারের নজরদারি বাড়ানো দরকার বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। : উল্লেখ্য, নওগাঁর মান্দায় ঋণের দায়ে স্বামী-স্ত্রী বিষপানে একসঙ্গে আত্মহত্যা করেন। এরা হলেন, উপজেলার ছোটচকচম্পক গ্রামের মৃত মুরালি মোহন সাহার ছেলে নিরঞ্জন কুমার সাহা (৫২) ও তার স্ত্রী লক্ষ্মী রানী সাহা (৪২)। এদের মধ্যে নিরঞ্জন কুমার সাহা ছোটচকচম্পক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে কর্মরত ছিলেন। দাম্পত্য জীবনে তারা নিঃসন্তান ছিলেন। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

বিএনপি স্থায়ী কমিটি সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, জনসমর্থন না থাকায় নির্বাচন নিয়ে আতঙ্কে আছে সরকার। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
1461 জন