আত্রাইয়ে আবাদি জমি ও রাস্তাঘাট নদীগর্ভে বিলীন
Published : Saturday, 30 December, 2017 at 12:00 AM
আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর আত্রাইয়ে অপরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলনে এলাকাবাসীর জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। নদী থেকে বালু উত্তোলনের প্রয়োজনীয় রোডম্যাপ, উত্তোলন পদ্ধতি এবং পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা ছাড়াই বালু উত্তোলনের ফলে এলাকার রাস্তাঘাট, মানুষের ঘরবাড়ি ও ফসলি জমি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। জানা যায়, সরকারিভাবে আত্রাই নদী খনন প্রকল্প অনুমোদন হয়। সে অনুযায়ী প্রায় দেড়মাস পূর্বে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)-এর আয়োজনে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান আত্রাইয়ে এ কাজের উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনের পর প্রায় ১ মাস পর্যন্ত কার্যক্রম বন্ধ থাকলেও সম্প্রতি উপজেলার ভরতেঁতুলিয়া আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ পল্লী বিদ্যুতের জায়গা ও পোস্ট অফিসের মাঠ ভরাট করার জন্য বিআইডব্লিউটিএ’র ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন শুরু করে। এদিকে বালু উত্তোলনের প্রথম দিনেই এলাকার রাস্তাঘাট ভাঙ্গা শুরু হয়ে যায়। তারপরও তারা অবাধে বালু উত্তোলন করতে থাকে। এদিকে অপরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলন করায় পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকার ফলে ভরতেঁতুলিয়া গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ওয়ারিশদের জমি ভেঙ্গে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এদিকে এতিম সন্তানদের আবাদি জমি নদীগর্ভে বিলীন হওয়ায় তারা এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে। ভরতেঁতুলিয়া গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের বিধবা স্ত্রী আঞ্জুয়ারা বিবি কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, আমরা গরিব মানুষ, এতটুকুই আমাদের ফসলি জমি। তাও আবার উনারা দহ বানিয়ে দিল। এখন আমি কি করে সন্তানদের নিয়ে চলবো। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রজেক্ট ম্যানেজার রাসেল বলেন, আমরা জানি এখানে ভরাট দিতে গেলে পানি নিষ্কাশনে সমস্যা হবে। তারপরও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও পল্লী বিদ্যুতের এজিএম সাহেবের আবদার পূরণ করতে গিয়ে এ ক্ষতিটি হয়েছে। এ ব্যাপারে টেকনিক্যাল এসিস্টেন্ট জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমরা আশ^াস দিয়েছি। ক্ষতিগ্রস্তদের জায়গা পূরণ করে দেয়া হবে। এ বিষয়ে নওগাঁ পল্লী বিদু্যুৎ সমিতি আত্রাই জোনের এজিএম ফিরোজ হোসেনের সঙ্গে একাধিকবার তার সরকারি মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, দেশে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড হচ্ছে না। আপনি কি একমত?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
1985 জন