পাবনায় বিএনপির কর্মী সভায় ডা.জাহিদ হোসেন
আগামীতে আ’লীগকে ফাঁকা মাঠে গোল দেয়ার সুযোগ দেয়া হবে না
Published : Monday, 1 January, 2018 at 12:00 AM, Update: 31.12.2017 10:39:25 PM
আগামীতে আ’লীগকে ফাঁকা মাঠে গোল দেয়ার সুযোগ দেয়া হবে নাপাবনা প্রতিনিধি, দিনকাল : বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেছেন, সরকার আগামী দিনে আবারো একতরফা একদলীয় নির্বাচন করতে চায়। তারা দেশে একনায়কতন্ত্র সৃষ্টির মাধ্যমে গণতন্ত্রকে চিরদিনের জন্য নির্বাসনে দিতে চায়। কিন্তু আগামী দিনে আওয়ামী লীগকে আর ফাঁকা মাঠে গোল দেয়ার সুযোগ দেয়া হবে না। এরকম চেষ্টা করলে দেশপ্রেমিক জনগণকে সাথে নিয়ে এবার জাতীয়তাবাদী শক্তি প্রতিরোধ গড়ে তুলবে। এই সরকার যেহেতু জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়, ফলে দেশের মানুষের প্রতি এদের কোন দায়িত্ববোধ ও দায়বদ্ধতা কাজ করে না। জনগনের কণ্ঠ রোধ করে, দেশপ্রেমিকদের টুঁটি চেপে ধরে জোর করে এরা ক্ষমতায় বসে আছে। আওয়ামী লীগের আমলে গুন, খুম, জুলুম, হামলা, মামলা আর নির্যাতনের উন্নয়নে মানুষের আজ নাভিশ্বাস ঘটছে। মানুষের ভোটাধিকার হরণ ও গণতন্ত্র হরণ করে আজ দেশে একদলীয় শাসনের পাঁয়তারা করছে সরকার। ফ্যাসিস্ট চরিত্রের এই সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতা খর্ব করে দেশে আইনের শাসনকে কবর দেওয়ার চক্রান্ত করছে। তথাকথিত উন্নয়নের নামে দেশের ব্যাংক সেক্টর ধ্বংস করে ফেলেছে। বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বাড়িয়ে জনগণের পকেটের বাড়োটা বাজিয়েছে এই সরকার। আজকে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। সার,বীজ, কীটনাশকের দাম বৃদ্ধির কারণে দিশেহারা হয়ে পড়েছে কৃষক। আজকে মানুষ পরিবর্তনের জন্য অস্থির হয়ে পড়েছে। মানুষ আজকে ভোটের অধিকার ফিরে পেতে চায়। আজ দেশের মানুষের আস্থা ও নির্ভরতার ঠিকানা শহীদ জিয়ার পরিবারের ওপরে যে নির্যাতন চালানো হয়েছে এবং হচ্ছে যা অত্যন্ত অমানবিক। তিনি আরো বলেন, দেশের একাধিকবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ও তার পরিবারের ওপরে অব্যাহত জুলুমের মাধ্যমে শেখ হাসিনার সরকার তাদের ফ্যাসিস্ট চরিত্রের সম্পূর্ণটুকুই প্রকাশিত করেছে। তারেক রহমানের প্রতি যে সীমাহীন নির্যাতন করা হয়েছে যা অত্যন্ত দুঃখজনক ও মর্মান্তিক। বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপরে জুলুম ও নির্যাতন চালিয়ে মামলা করে মানসিক ও শারীরিকভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। আজকে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী এড. শামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাসসহ বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ কর্মীদের বিরুদ্ধে অন্যায়ভাবে একের পর এক মামলা ও গ্রেফতারি পরওয়ানা জারির মাধ্যমে সরকার তাদের নোংড়া চরিত্রের সবটুকুই প্রকাশ করেছে। তাই দেশপ্রেমিক সাধারণ মানুষের বাক স্বাধীনতা ফিরিয়ে দিতে, জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত করতে ও গণতন্ত্র পুনঃ উদ্ধার করতে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন ও সংগ্রামকে বেগবান করতে হবে। তবে অচিরেই এই জুলুমবাজ অত্যাচারী আওয়ামী লীগ সরকারের বিদায় হয়ে জনগণের বিজয় পতাকা উড়ার মাধ্যমে দেশে জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত এবং গণতন্ত্র পুনঃউদ্ধার করা হবে। : গতকাল রবিবার দুপুরে পাবনা জেলা বিএনপির উদ্যোগে স্থানীয় দোয়েল কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। : পাবনা জেলা বিএনপির সভাপতি মেজর (অব:) কে এস মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মী সভায় বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, নজমুল হক নান্নু, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এড. রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মমিন তালুকদার, সৈয়দ শাহীন শওকত, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য ও সাবেক এমপি কে এম সেলিম রেজা হাবিব, সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম সরদার, সাবেক এমপি কে এম আনোয়ারুল ইসলাম, কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, জহুরুল ইসলাম বাবু, মোখলেছুর রহমান বাবলু, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তোতাসহ নেতৃবৃন্দ। এর আগে নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছলে জাতীয় পতাকা, বিএনপির পতাকা ও ধানের শীষ প্রতীক হাতে তাদেরকে ফুলেল অভ্যর্থনা জানান দলের নেতাকর্মীরা। উল্লেখ্য, এই কর্মী সভা ঘিরে অনুষ্ঠানস্থলসহ আশেপাশের এলাকায় ছিলো দলের নেতাকর্মীদের মাঝে মিলনমেলার এক উৎসবের আমেজ। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

সুজন নেতৃবৃন্দ বলেছেন, রংপুরের ভোট নিয়ে ইসির নিরপেক্ষতা ও গ্রহণযোগ্যতা বিচার করা ঠিক হবে না। আপনি কি একমত?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
7465 জন