আইইবিতে ছাত্র সমাবেশে দিনভর বাধা পরিকল্পিত : ফখরুল
পুলিশ গেট বন্ধ করে রাখায় এক ঘণ্টা বাইরে বসে ছিলেন বেগম খালেদা জিয়া
Published : Wednesday, 3 January, 2018 at 12:00 AM, Update: 02.01.2018 11:23:47 PM
পুলিশ গেট বন্ধ করে রাখায় এক ঘণ্টা বাইরে বসে ছিলেন বেগম খালেদা জিয়াদিনকাল রিপোর্ট : জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের পূর্ব নির্ধারিত সমাবেশে দিনভর বাধা দেয় পুলিশ। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে এবং হল ভাড়ার টাকা পরিশোধের পরেও পুলিশ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের মূলগেটে দিনভর তালা লাগিয়ে রাখে। অবশেষে খালেদা জিয়ার দৃঢ়তায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের তালা খুলে দিতে বাধ্য হয়েছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৫টা ২৫ মিনিটে পুলিশ তালা খুলে দেয়। এর আগে বিকেল ৪টা ২৫ মিনিটে বিএনপি চেয়ারপারসন ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন চত্বরে পৌঁছেন। কিন্তু ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের মূলগেট তালাবদ্ধ থাকায় তিনি সভাস্থলে প্রবেশ করতে পারেননি। : প্রায় এক ঘন্টা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের গেটের বাইরে গাড়িতে বসে ছিলেন বেগম খালেদা জিয়া। আর বিএনপি এবং ছাত্রদলের হাজার হাজার নেতাকর্মী গেটের বাইরে অপেক্ষা করতে থাকেন। তবে বিএনপি চেয়ারপারসনের এই দৃঢ়তার ফলে পুলিশ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের গেটের তালা খুলে দিতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানান ছাত্রদলের নেতারা। : ছাত্রদলের দফতর সম্পাদক আবদুস সাত্তার পাটোয়ারী সাংবাদিকদের বলেন, ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটশনের মূলগেট ও অডিটরিয়াম তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, গতকাল সকাল ৯টার পর থেকে গেটের সামনে নেতা কর্মীরা জড়ো হতে থাকেন। সকাল ১০টার দিকে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা অনুষ্ঠানস্থলে মঞ্চ ও সার্বিক প্রস্তুতি নিতে গেলে অনুষ্ঠানের অনুমতি বাতিলের বিষয়টি তাদের জানানো হয়। অথচ তারা হলভাড়ার টাকা পরিশোধসহ যাবতীয় অনুমতি আগেই সম্পন্ন করেছেন। : তিনি বলেন, গেটে তালা এবং পুলিশের বাধা সত্ত্বে¡ও সংগঠনের নেতা-কর্মীরা সমাবেশস্থল ছাড়েননি। পরে বেলা ১টার দিকেও তারা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনের সামনে বিক্ষোভ করেন। শুধু তাই নয়, সরকারের পক্ষ থেকে সুপরিকল্পিতভাবে কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ছাত্রদলের নির্ধারিত সমাবেশ বাঞ্চালের চেষ্টা করেছে। কিন্তু তারা সফল হয়নি। : আবদুস সাত্তার পাটোয়ারী বলেন, দুপুরে বিএনপি মহাসচিব দলের কেন্দ্রীয় অফিসে সংবাদ সম্মেলনে পুরো পরিস্থিতি তুলে ধরেন। এমনকি সমাবেশ নিয়ে নানা সংশয় দেখা দেয়। তবে বিকেল পর্যন্ত ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা অনুষ্ঠানস্থলের বাইরে অবস্থান নিয়ে রাখে। এরইমধ্যে খবর আসে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া সমাবেশস্থলে আসছেন। এই খবর পেয়ে নেতা-কর্মীরা আরো শক্ত অবস্থান নিতে থাকেন। : প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, বিকেল ৪টা ৫২ মিনিটে ইনস্টিটিউশন চত্বর  থেকেই বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ঘোষণা দেন, বিএনপি  চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপস্থিতিতে এই চত্বরেই সমাবেশ  করবেন। এরপর ৫টা ২৫ মিনিটে মিলনায়তনের তালা খুলে দিতে বাধ্য হয় পুলিশ। গেটের তালা খুলে দেয়ার পর বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে ভেতরে নির্ধারিত মঞ্চে সমাবেশের কাজ শুরু করেন তারা। : এর আগে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব অভিযোগ আনেন ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে পুলিশের বাধা এবং দিনভর নাটকীয়তার ফলে ছাত্রদলের নির্ধারিত সমাবেশ বাঞ্চালের ষড়যন্ত্র চলছে।   : তিনি বলেন, সরকার সুপরিকল্পিতভাবে দিনভর নাটকীয়তা এবং ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টির মাধ্যমে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশ বাঞ্চাল করতে চেয়েছে। : তিনি বলেন, গতকাল সকাল থেকেই রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে ছাত্রদলের নির্ধারিত ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশ বাঞ্চালের জন্য সরকার নানা ফন্দি ফিকির করেছে। সুপরিকল্পিতভাবে ওই এলাকায় ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের সমাবেশস্থলে ঢুকতে দেয়া হয়নি। ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিটের মূল গেট বন্ধ করে রাখে পুলিশ। : সমাবেশে বাধা দিয়ে জাতীয়তাবাদী দলের গণতন্ত্রের সংগ্রাম দমিয়ে রাখা যাবে না। : মির্জা ফখরুল বলেন, রাষ্ট্রপতির নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এসএসএফ জানায়, সুপ্রিম কোর্টে রাষ্ট্রপতির একটি প্রোগ্রাম আছে। তাই নিরাপত্তার স্বার্থে ছাত্র দলের সমাবেশ করতে আপত্তি রয়েছে। : তিনি বলেন, এক মাস আগে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিটে সমাবেশের জন্য অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়েছিল। পুলিশও অনুমিত দিয়েছে। হল বুকিং দেয়া হয়েছে। কিন্তু  (আজ) গতকাল মঙ্গলবার  হঠাৎ করে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিটের গেট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে আবার প্রমাণ হলো, এই সরকারের আমলে গণতান্ত্রিকভাবে রাজনৈতিক দলগুলোর কার্যক্রম পরিচালনার কোনো সুযোগ নেই। : মির্জা ফখরুল বলেন, অনুমোদনকৃত অনুষ্ঠান বন্ধ করার চেষ্টা ও গড়িমসি করা গণতান্ত্রিক অধিকার খর্ব করার শামিল। : তিনি বলেন, পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে দুপুর ২টায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ছাত্র সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছিল। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপস্থিত থাকার কথা। : মির্জা ফখরুল বলেন, বর্তমানে যারা সরকারে আছে তারা কেউ ভোটে নির্বাচিত হয়নি। তাই তারা সামনে যে নির্বাচন আসছে তাতে বিরোধীদল অংশগ্রহণ করুক তা চায় না। কারণ বিভিন্ন জরিপে তারা বুঝতে পেরেছে সুষ্ঠু অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে ক্ষমতাসীনরা জয়ী হতে পারবে না। তাদের আসল উদ্দেশ্য বিএনপি যেন সুষ্ঠু অবাধ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে না পারে। নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন যাতে না হয় সেজন্য গ্রাইন্ড তৈরি করছে। : বিএনপি মহাসচিব বলেন, বর্তমান সরকার এবং প্রধানমন্ত্রীর অধীনে নির্বাচনে যাওয়ার সুযোগ আছে বলে মনে করি না। খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। তাই আমরা বলে আসছি সংলাপ আলাপ-আলোচনার পরিবেশ  তৈরি করুন। সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা নিন। কারণ খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে এদেশে কোনো নির্বাচন হবে না। দেশে কোথাও স্বস্তি শান্তি নিরাপত্তা নেই। : দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, গণতান্ত্রিক পরিবেশ, অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচন, নির্বাচনকালীন সরকারের দাবিতে জনগণের অধিকার প্রয়োগে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে সরকারকে বাধ্য করতে হবে। : মন্ত্রিপরিষদের রদবদল প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এটা তাদের হেডেক (মাথাব্যথা)। মাই হেডেক না। আমার হেডেক আমি রাজনীতি করতে পারছি না। কথা বলার স্বাধীনতা পাচ্ছি না। শেষ মুহূর্তে এসে প্রতিটি সরকার এ কাজটি করে। তারা মনে করে, কিছু রদবদল করলেই ক্ষমতায় টিকে থাকা যাবে। : বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, আহমদ আজম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, আতাউর রহমান ঢালী, যুগ্ম-মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক সরফত আলী সপু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, টাঙ্গাইল  জেলা বিএনপির সভাপতি কৃষিবিদ শামসুল আলম তোফা প্রমুখ। : প্রসঙ্গত, গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন এলাকায় বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ হয়। এরপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কড়া অবস্থান নেয় শাহবাগ-মৎস্যভবনসহ আশেপাশের এলাকায়। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ২০১৮ সালে জনগণের বিজয় হবেই। আপনিও কী তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
8685 জন