ডাক্তার সঙ্কটে লক্ষাধিক মানুষ চিকিৎসাবঞ্চিত
Published : Friday, 5 January, 2018 at 12:00 AM
বোদা (পঞ্চগড়) প্রতিনিধি : পঞ্চগড়ের বোদা সদর হাসপাতালটি ৪ জন ডাক্তার দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। এতে এ উপজেলার লক্ষাধিক মানুষ চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। পর্যাপ্ত পরিমাণে ডাক্তার ও ওষুধপত্র না থাকায় চিকিৎসা ব্যবস্থার এ অবস্থা বলে জনসাধারণ মনে করছেন। উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে এ হাসপাতালটিতে ২৯ জন ডাক্তার থাকার কথা থাকলেও ১২ জন ডাক্তার নিয়োগপ্রাপ্ত ছিলেন। এদের মধ্যে ৪ জন  ডাক্তার বর্তমানে কর্মরত আছেন। বাকি ডাক্তাররা নিয়োগপ্রাপ্তির পর থেকে অনুপস্থিত রয়েছেন। তাদের খবর উপজেলা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দিতে পারছে না। শিশু কনসালটেন্ট, নাক-কান-গলা চিকিৎসক, অর্থপেডিক ও গাইনি চিকিৎসক নেই দীর্ঘদিন ধরে। নেই এক্স-রে মেশিন অপারেটর। আল্ট্রাসনোগ্রাম নেই। অ্যাম্বুলেন্সটি সব সময় নষ্ট থাকে।এভাবেই চলছে উপজেলার মানুষের স্বাস্থ্যসেবা। এই ৪ জন ডাক্তারের মধ্যে আরো ১ জন ডাক্তারকে এ জেলার আটোয়ারী উপজেলায় বদলি করা হেেয়ছে। হাসপাতালে কর্তব্যরত একজন ডাক্তার জানান, শুনেছি দীর্ঘদিন ধরে এ হাসাপাতালে ডাক্তার সংকট। ডাক্তার সংকট, বহির্বিভাগে রোগীর সংখ্যা বেশি থাকায় রোগী দেখতে হিমশিম খেতে হয়। তার পরেও এই বিশাল জনপদের স্বাস্থ্যসেবা তাদের দিতে হয়। হাসপাতাল গিয়ে বহির্বিভাগে অপেক্ষাকৃত রোগী জালালের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তিনি ১ ঘন্টা ধরে ডাক্তার দেখানোর জন্য অপেক্ষায় রয়েছেন। তিনি জানান, ডাক্তার সংকট থাকায় রোগেীদের ভোগান্তি পেতে হচ্ছে। এ উপজেলার একজন সচেতন নাগরিক জুরেরী জানান, তার স্ত্রীকে নিয়ে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা নিতে যান। সেখানে কোনো ডাক্তার না পাওয়ায় তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রাজিউলের কাছে চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করেন। তার অভিমত, ‘আমি একজন সচেতন নাগরিক হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা নিতে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। তাহলে যারা গরিব, দুস্থ মানুষ আছে তাদের চিকিৎসাসেবার কী অবস্থা হতে পারে।’ এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. রাজিউল করিমকে তার কার্যালয়ে গিয়ে পাওয়া যায়নি। ফোনে কথা বলতে চাইলে তিনি জানান, ‘আমি অতিরিক্ত দায়িত্ব পালনে আটোয়ারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আছি।’ উপজেলার মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে সুশীল সমাজের ব্যক্তির উদ্যোগে নাগরিক কমিটি গঠন করা হয়েছে। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সভা-সমাবেশের অনুমতি নিয়ে সরকার দ্বৈত নীতি গ্রহণ করেছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
295 জন