মাদক ও জঙ্গি নির্মূল করতে পারিনি : আইজিপি
Published : Sunday, 7 January, 2018 at 12:00 AM, Update: 06.01.2018 11:21:45 PM
মাদক ও জঙ্গি নির্মূল করতে পারিনি : আইজিপিদিনকাল রিপোর্ট : পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক বলেছেন, ‘মাদক নির্মূল করতে পারিনি। এমনকি জঙ্গিও নির্মূল করতে পারিনি। মাদকের সবচেয়ে বড় সমস্যা ইয়াবা।’ পুলিশ সপ্তাহ উপলক্ষে গতকাল শনিবার পুলিশ সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইজিপি এসব কথা বলেন। : শহীদুল হক বলেন, প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে প্রচুর ইয়াবা আসছে। সমুদ্রে সীমান্তের দৈর্ঘ্য ৯০ থেকে ১০০ কিলোমিটার। হাজার হাজার মৎস্যজীবী নৌকায় করে প্রতিদিন ইয়াবা নিয়ে আসে। মাছের পেটে করে, সবজির মধ্য দিয়ে ইয়াবা নিয়ে আসে মাদক ব্যবসায়ীরা। এটা বন্ধ করা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। কিন্তু মাদকের ব্যাপারে পুলিশের অবস্থান জিরো টলারেন্স। : মাদক নির্মূলে পুলিশ অনেক অভিযান পরিচালনা করেছে উল্লেখ করে আইজিপি বলেন, কক্সবাজার, নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্ন জায়গায় মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের বন্দুকযুদ্ধ হয়েছে। গত পাঁচ বছরে মাদক বহনকারীদের বিরুদ্ধে ২ লাখ ৮৭ হাজার ২৫৪টি মামলা হয়েছে। কিন্তু আইন দিয়ে, মামলা করে মাদক সমস্যার সমাধান করা যাবে না। পরিবারের ভূমিকা হচ্ছে আসল। পুলিশ মাদক ব্যবসায় বিনিয়োগকারীদের একটি তালিকা করেছে। পুলিশের এই তৎপরতা অব্যাহত থাকবে। : আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক বলেন, সার্বিকভাবে দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি হলেও জঙ্গিবাদ-মাদক নির্মূল করা পুলিশের একার পক্ষে সম্ভব নয়। তিনি বলেন, ২০১৭ সালে আগের বছরের চেয়ে জঙ্গি দমনে বেশি সফলতা পেয়েছে পুলিশ। এ কারণে এবার সাফল্যের জন্য পুলিশকে দেয়া পদকের সংখ্যা ৯০ থেকে ১৮২ করা হয়েছে। : তিনি বলেন, গত বছর ৩৫টি জঙ্গিবিরোধী অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। : এ সময় আইজিপি তার দায়িত্ব পালনকালে জঙ্গিবিরোধী পুলিশের বিশেষ ইউনিট গঠনকে বিশেষ অর্জন বলে উল্লেখ করেন। তিনি আরও বলেন, ‘আমি দায়িত্বে আসার পর পুলিশ বাহিনীতে নতুন ৮০ হাজার পদ সৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে পুলিশের সক্ষমতা বেড়েছে।’ : বাংলাদেশে জঙ্গি দমনের সফলতার বিষয়টি বিশ্বজুড়ে প্রশংসিত হয়েছে বলেও জানান তিনি। জঙ্গি দমনে সফলতার অভিজ্ঞতা বিনিময় করতে বাংলাদেশ পুলিশের দুজন কর্মকর্তাকে ইন্টারপোল আমন্ত্রণ জানিয়েছে বলে উল্লেখ করেন আইজিপি। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

নিখোঁজদের সন্ধানে স্বজনরা যাচ্ছেন জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলে। আপনি কি এ উদ্যোগ সমর্থন করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
33835 জন