আত্রাইয়ে অরক্ষিত তিনটি রেলগেট!
প্রতি মুহূর্তে চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ
Published : Friday, 12 January, 2018 at 12:00 AM
আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি : অবাক হলেও সত্য দীর্ঘদিন অতিক্রান্ত হলেও নওগাঁর আত্রাইয়ে আজও নির্মাণ করা হয়নি দীর্ঘদিনের ৩টি অরক্ষিত রেলগেটের কোনো গেট। এমনকি আজও কোনো স্থায়ী গেটম্যান নিয়োগ করেনি রেল কর্তৃপক্ষ। ফলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় এই সড়কগুলো দিয়ে প্রতিনিয়ত যানবাহন ও পথচারীদের চলাচল করতে হচ্ছে। যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে। শুধু তাই নয়, জনগুরুত্বপূর্ণ এই রেলগেটগুলো আজও অনুমোদন দেয়নি রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। আহসানগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন সূত্রে জানা যায়, আত্রাই রেল ব্রিজের দক্ষিণ পাশে একটি, আহসানগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের উত্তরে একটি এবং উপজেলার শাহাগোলা রেলওয়ে স্টেশনের উত্তরে একটি লেভেল ক্রসিং রয়েছে। এই তিনটি লেভেল ক্রসিংই অরক্ষিত অবস্থায় রয়েছে। এসব লেভেল ক্রসিং রেলওয়ের অনুমোদিত না হওয়ায় রেল কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে স্থায়ী গেট নির্মাণেরও কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। এদিকে এসব লেভেল ক্রসিং দিয়ে প্রতিদিন শ’ শ’ ট্রাক, ট্রলি, মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেল, সিএনজিসহ বিভিন্ন প্রকার যানবাহন চলাচল করে থাকে। অসাবধানতা অবলম্বনে যে কোনো সময় ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের কোনো দুর্ঘটনা। নামমাত্র বাঁশের অস্থায়ী গেট নির্মাণ করে সেখানে লোক নিয়োগ দেয়া থাকলেও তাদের কোনো বেতন-ভাতা দেয়া হয় না। ফলে তাদের পরিবার-পরিজনকে নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করতে হয়। এ ব্যাপারে আহসানগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের উত্তর পাশের গেটম্যান আনসার আলী বলেন, ‘আমরা উপজেলা প্রশাসনের আশ্বাসের ভিত্তিতে এখানে রোদ-বৃষ্টি উপেক্ষা করে দীর্ঘদিন ধরে গেটম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছি। আমাদের কোনো বেতন-ভাতা দেয়া হয় না। যেসব যানবাহন পারাপার হয় তাদের কাছ থেকে দু-এক টাকা করে নিয়ে পরিবার নিয়ে কোনোমতে জীবন ধারণ করি।’ নাটোর উপজেলার সিএনজিচালক রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা সিএনজি নিয়ে রেলগেট অতিক্রম করলে ৫ টাকা করে দিতে হয়। এভাবে বিভিন্ন জায়গায় চাঁদা দিতেই অনেক সময় টাকা ফুরিয়ে যায়।’ আত্রাই রেলস্টেশনের দক্ষিণ পাশের গেটম্যান মো. জানবক্স জানান, ‘আমাদের আত্রাইয়ের অরক্ষিত রেলগেটগুলোর সরকারিভাবে গেটম্যান নিয়োগ দেয়ার দায়িত্ব পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের। এসব রেলগেট দীর্ঘদিনের হওয়া সত্ত্বেও আজও আমাদের স্থায়ী নিয়োগ দেয়া হয়নি। এ গেট দিয়ে পারাপারের গাড়ি থেকে সামান্য যে টাকা পায় ত্ াদিয়ে সংসার চালানো কষ্টকর হয়ে পড়েছে।’ আহসানগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার ছাইফুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে রেলের গেটম্যান নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ থাকায় অরক্ষিত গেটগুলোয় গেটম্যান নিয়োগ দিতে পারেনি রেল কর্তৃপক্ষ। তবে নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষে গেটম্যান নিয়োগ দেয়া হলে দুর্ঘটনা অনেকাংশে কমে আসবে বলে তিনি মনে করেন। পশ্চিমাঞ্চল রেলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

সুজন সম্পাদক বলেছেন, আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সংসদ ভেঙে সেনা মোতায়েন করতে হবে। আপনি কি একমত?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
33187 জন