ময়মনসিংহে চারজনসহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১০
Published : Sunday, 14 January, 2018 at 12:00 AM
দিনকাল ডেস্ক : দেশের বিভিন্নস্থানে গতকাল শনিবার সড়ক দুর্ঘটনায় ১০ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে ময়মনসিংহে ৪, জৈন্তাপুরে ৩, ভালুকায় ২ ও মহাদেবপুরে ১ জন। : ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহ প্রতিনিধি জানান, ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন কমপক্ষে আরো ১৫ জন। গতকাল শনিবার সকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভালুকা উপজেলার ভরাডোবা, হাজিরবাজার এলাকা, ময়মনসিংহ শহর ও বিকেলে সদর উপজেলার দাপুনিয়া এলাকায় পৃথক এসব দুর্ঘটনা ঘটে। : ভালুকা থানার ওসি মামুনুর রশিদ জানান, হাজিরবাজার এলাকায় ঢাকাগামী যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে হুমায়ুন কবীর নামে এক যুবক নিহত হন। তিনি গফরগাঁও উপজেলার কলিম উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় আরো পাঁচজন আহত হন। অন্যদিকে ভরাডোবা এলাকায় মাইক্রোবাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি নিহত হন। আহত হন আরো পাঁচজন। আহতদের মধ্যে পাঁচজনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপরদিকে ময়মনসিংহ শহরের পাটগুদাম ব্রিজমোড়ে ট্রাকচাপায় শাহিন (৩০) নামে এক রিকশাচালক নিহত হয়েছেন। : কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি (অপারেশন) শাকির আহম্মেদ জানান, সকাল ১০টার দিকে পাটগুদাম ব্রিজমোড়ে ট্রাকচাপায় ঘটনাস্থলেই শাহিন নামে এক রিকশাচালক নিহত হন। নিহত শাহিনের বাড়ি তারাকান্দা উপজেলায়। এ ঘটনায় চালকসহ ট্রাকটি আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। : এদিকে বিকেলে জেলার সদর উপজেলার দাপুনিয়া এলাকায় ইটবোঝাই একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মসজিদের জন্য টাকা তুলতে থাকা একদল মুসল্লির ওপর তুলে দিলে শফিক (৩২) নামে এক ব্যক্তি ঘটনাস্থলেই মারা যান। এতে আহত হন আরও ৫ জন। এ ঘটনায় উত্তেজিত জনতা ট্রাকটি আটক করে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে ফুলবাড়িয়া ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নেভায়। আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। : সিলেট : সিলেট অফিস জানায়, সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর উপজেলার দরবস্ত এলাকায় যাত্রীবাহী বাস ও খাম্বাবোঝাই ট্রাকের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন। গতকাল শনিবার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে দুজন নারী ও একটি শিশু রয়েছে। নিহতরা হলেন- মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভাড়াউরা গ্রামের তপন তালুকদারের শ্রী শুক্লা রানী (২৩), তার শিশুকন্যা ইতপা রানী (৫) ও শুক্লা রানীর শাশুড়ি অমকা রানী (৫৫)। : আহতদের মধ্যে কয়েকজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেনÑ হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার মিলন চার্য (৩২), তার স্ত্রী শিপ্রা চার্য (২৩), জৈন্তাপুর উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের ভাইটগ্রামের মৃত সাইফ উল্লার ছেলে হাবিবুর রহমান (৫০)। : জানা যায়, সিলেট থেকে জৈন্তাপুরগামী একটি যাত্রীবাহী বাস ও বিপরীত দিক থেকে আসা থাম্বা বোঝাই ট্রাকের মধ্যে দরবস্ত বিদ্যুৎ অফিসের সামনে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে তিনজন নিহত হন। আহত হয়েছেন আরো কয়েকজন। : স্থানীয়দের বরাত দিয়ে গোয়াইনঘাটের সাংবাদিক মনজুর আহমদ সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন। মৃত্যুর সংখ্যা সম্পর্কে পুলিশের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। : জৈন্তাপুরের সাংবাদিক নুরুল ইসলাম জানিয়েছেন, দুর্ঘটনাকবলিত বাসটি পর্যটকবাহী নাকি যাত্রীবাহী এ ব্যাপারে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত নিশ্চিত হওয়া যায়নি। : এদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার ওসি খান মো. মাইনুল জাকির, দরবস্ত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বাহারুল আলম বাহার ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করেন। : এদিকে ঘটনার পর সিলেট-তামাবিল মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয় জনতা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ দরবস্ত অফিসের সম্মুখে বিক্ষোভ করে। : এলাকাবাসী জানায়, অপরিকল্পিতভাবে সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ সড়কের দুই পাশের ফুটপাত দখল করে খাম্বা রাখা এবং সড়কের মধ্যে ট্রাক দাঁড় করিয়ে লোড-আনলোড করার কারণে রাস্তা পারাপার হতে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে জনসাধারণকে। এ নিয়ে উপজেলা নির্বাহী বরাবরে এলাকাবাসী আবেদন এবং জাতীয় স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ করলেও সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ খাম্বা না সরিয়ে প্রতিনিয়ত খাম্বা রেখে সড়কের দুপাশ দখল করে রেখেছে। তাদের দাবি, এ দুর্ঘটনার দায়ভার সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এবং স্থানীয় জৈন্তাপুর উপজেলা প্রশাসনকে নিতে হবে। : জৈন্তাপুর মডেল থানার ওসি খান মো. মাইনুল জাকির দুর্ঘটনায় হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাস্থলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন। : ভালুকা : ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি জানান, ঘন কুয়াশার কারণে ভালুকায় পৃথক সড় দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত ও কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। ঘটনা দুটি ঘটেছে গতকাল শনিবার সকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ভালুকা উপজেলার মেহেরাবাড়ী ও ভরাডোবা নামক স্থানে। : সূত্র জানায়, শনিবার ভোরে ঢাকাগামী বালুভর্তি একটি ট্রাক (ঢাকা-মেট্রো-ট-১৮-৮০৬০) ঘন কুয়াশার মধ্যে মহাসড়কের মেহেরাবাড়ী এলাকায় রাস্তার মাঝখানে দাঁড় করিয়ে রাখে। এ সময় নেত্রকোনা থেকে ছেড়ে আসা ইকরা পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা-মেট্রো-ব-১২-০৩৭২)ঘন কুয়াশার কারণে ট্রাকের পেছনে ধাক্কা খায়। এতে বাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। একই সময় পিছন থেকে নম্বরবিহীন একটি মোটরসাইকেল এসে বাসের পেছনে ধাক্কা খেয়ে রাস্তার পাশে খাদে ছিটকে পড়ে। পর্যায়ক্রমে ঢাকাগামী অপর একটি মাইক্রোবাস (ঢাকা-মেট্রোÑঠ-১১-৮৭১৫) মহাসড়কে একই স্থানে দুর্ঘটনাকবলিত হয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। ঘন কুয়াশায় দেখতে না পেয়ে আরও একটি মাইক্রোবাস (ঢাকা-মেট্রো-১৪-০২৫৩) পেছনে গিয়ে ধাক্কা খেয়ে রাস্তার পাশে ছিটকে পড়ে যায়। এতে মাইক্রোবাসটিও দুমড়ে-মুচড়ে যায়। খবর পেয়ে ভালুকা ফায়ার সার্ভিস, ভরাডোবা হাইওয়ে ও ভালুকা মডেল থানাপুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করে। নিহত হুমায়ন কবির তমাল পার্শ্ববর্তী গফরগাঁও উপজেলার বাড়াগ্রামের কলিম উল্লাহর পুত্র। গুরুতর আহত ৪ জন হলেনÑ ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার নিজবাখাইল গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে খোকন (৪০), ওই উপজেলার রায়মনি গ্রামের শামসুদ্দিনের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৪০), ফুলবাড়িয়া উপজেলার আছিম গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে আব্দুল মজিদ (৩৫) ও ময়মনসিংহ সদরের জালাল উদ্দিনের ছেলে আব্দুস ছালাম (৩৫)। আহত ৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় তাদের ভালুকা হাসপাতাল থেকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আহত অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। অপরদিকে উপজেলার ভরাডোবা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অজ্ঞাতনামা ট্রাকের পেছনে একটি মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো নং- ১৬-১-৫১০৭) ধাক্কায় মাইক্রোবাসের যাত্রী গৌরিপুর উপজেলার কিসমত বড়বাগ গ্রামের জব্বার আলীর ছেলে শাজাহান সাজু (৪৫) ঘটনাস্থলেই মারা যান। : নওগাঁ : মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি জানান, নওগাঁর মহাদেবপুর-নওগাঁ আঞ্চলিক মহাসড়কের বসনা ব্রিজ নামক স্থানে গতকাল শনিবার সকাল ৯টার দিকে ট্রাকচাপায় শামসুর রহমান (৪৭) নামে এক অটোভ্যান চালকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত শামসুর উপজেলার আলিপুর গ্রামের মৃত কিতাব উদ্দীনের ছেলে বলে জানা গেছে। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

সিপিডির ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেছেন, বর্তমানে গরিবরা আরও গরিব হয়েছে। আয় কমেছে ৬০ ভাগ মানুষের। সুশাসনের অভাবে এমন হচ্ছে বলে মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
33871 জন