দিল্লি ফিরে গেছেন মাওলানা সাদ
Published : Sunday, 14 January, 2018 at 12:00 AM
দিনকাল রিপোর্ট : শেষ পর্যন্ত দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের জিম্মাদার মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভি ঢাকা ত্যাগ করেছেন। গতকাল শনিবার বেলা পৌনে ১২টায় ‘জেড এয়ারওয়েজের’ একটি বিমানে মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভি দিল্লির উদ্দেশে ঢাকা থেকে রওয়ানা হন। ১৯৯৬ সাল থেকে বাংলাদেশে টঙ্গীতে অনুষ্ঠিত বিশ্ব ইজতেমায় নিয়মিত বয়ান ও আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করে আসছেন তিনি। কিন্তু এ বছর কওমী আলেম ও তবলিগ জামাতের একটি বড় অংশের বিরোধিতার কারণে মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভি চলমান বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিতে পারেননি। গত বছর তিনি তবলিগ জামাতের গুরুত্ব বুঝাতে গিয়ে মন্তব্য করেছেনÑ ‘যারা তবলিগ করবে না, তারা বেহেশত যেতে পারবেন না।’ তার ওই মন্তব্যই এবার টঙ্গীতে অনুষ্ঠিত বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেয়া,  বয়ান রাখা এবং আখেরি মোনাজাত পরিচালনার ব্যাপারে কাল হয়ে দাঁড়ালো।   : আপত্তিকর মন্তব্যর মধ্যে আরো রয়েছেÑ হজরত মূসা (রা.) ও ওমর (রা.) উদ্ধৃতি দিয়ে করা মাওলানা সাদের বক্তব্য নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। পরে ওই বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চান তিনি। মাওলানা সাদের ঢাকা ত্যাগের বিষয়ে জানতে চাইলে রমনা থানার ওসি কাজী মাইনুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, মাওলানা মোহাম্মদ সাদকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দিয়ে আমরা বিমানবন্দরে পৌঁছানো হয়েছে। : বিমানবন্দরের আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের এএসপি তারিক আহমেদ আস সাদিক সাংবাদিকদের বলেন, গতকাল দুপুর পৌনে ১২টার দিকে একটি ফ্লাইটে মাওলানা মোহাম্মদ সাদ ঢাকা ত্যাগ করেছেন। প্রসঙ্গত, গত ১০ জানুয়ারি দুপুরে ভারতের দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের জিম্মাদার তবলিগ জামাতের বিতর্কিত মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভি বিমানে ঢাকায় হযরত শাহজালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসেন। ওই দিন সকাল থেকে বিমানবন্দর এবং ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কসহ আশপাশের সব সড়ক বন্ধ করে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন কওমী আলেম ও তবলিগ জামাতের একটি বড় অংশের মুসল্লিরা। মাওলানা সাদের বিরুদ্ধে নানা বক্তব্য, শ্লোগান এবং তাকে দেশে ঢুকতে না দেয়ার ঘোষণা দিয়ে দিনভর কর্মসূচি পালন করেন তারা। একপর্যায়ে পুলিশের কড়াপ্রহরায় গোপনে মাওলানা সাদকে রাজধানীর কাকরাইল মসজিদে নিয়ে আসা হয়। এই খবর জানার পর সংক্ষুব্ধ মুসল্লিরা কাকরাইল মসজিদও অবরোধ করে রাখেন। : পরদিন ১১ জানুয়ারি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে কওমী আলেম ও তবলিগ জামাতের নেতাদের নিয়ে এক বৈঠক শেষে সিদ্ধান্ত হয়েছে মাওলানা সাদ দিল্লিতে ফেরত যাবেন এবং টঙ্গীতে ইজতেমায় এবার তিনি অংশ নেবেন না। এর আগ পর্যন্ত তিনি কাকরাইল মসজিদেই অবস্থান করবেন। তবে কাকরাইল মসজিদে মাওলানা সাদ জামাতের ইমামতি করেছেন এবং তার অনুসারীদের উপস্থিতিতে বয়ান রেখেছেন। শেষ পর্যন্ত মাওলানা সাদ তার আগের বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন বলে জানানো হয়। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

সিপিডির ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেছেন, বর্তমানে গরিবরা আরও গরিব হয়েছে। আয় কমেছে ৬০ ভাগ মানুষের। সুশাসনের অভাবে এমন হচ্ছে বলে মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
33731 জন