চট্টগ্রামে ভাঙাচুরা রাস্তা ধুলায় বিপর্যস্ত জনজীবন
Published : Tuesday, 30 January, 2018 at 12:00 AM, Update: 29.01.2018 11:08:28 PM
চট্টগ্রামে ভাঙাচুরা রাস্তা ধুলায় বিপর্যস্ত জনজীবনদিনকাল রিপোর্ট : বাণিজ্যিক রাজধানী বলে খ্যাত চট্টগ্রামের অধিকাংশ রাস্তা-ঘাট খানাখন্দে ভরা। ধুলা বালি আর বিপর্যস্ত রাস্তা নগরজীবনকে অসহনীয় পর্যায়ে নিয়ে গেছে। ব্যস্ততম নগরী চট্টগ্রামের রাস্তা ঘাটের এই করুণ অবস্থার ফলে মানুষের দুর্ভোগ অবর্ণনীয়।  দুর্ঘটনার ঝুঁকি মাথায় নিয়েই অনেকগুলো রাস্তায় যান চলাচল করতে হচ্ছে। ধুলা বালিতে পুরো চট্টগ্রাম নগরীর অধিকাংশ রাস্তা। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, ধুলাবালির পরিমাণ এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে, এ যেনো ঘনধুলার চাদরে ঢেকে ফেলে চট্টগ্রামের রাস্তাঘাট। : তবে যান চলাচলে অনুপযোগী রাস্তা আর ধুলা বালির ভেতর দিয়েই অনেকে যাতায়াত করছেন। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগ নগরী ও  জেলার অত্যধিক বিধ্বস্ত, নাজুক রাস্তাগুলো জরুরিভিত্তিতে মেরামতের উদ্যোগ নিচ্ছে না। মাঝে মধ্যে ভাঙ্গাচোরা রাস্তা তড়িঘড়ি করে নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহার করে মেরামত করা হলেও কাজ শেষ হতে না হতেই আবার ভেঙ্গে খানাখন্দের সৃষ্টি হয়। এখন শীতকাল অর্থাৎ শুকনো মৌসুম। মাস কয়েক আগে চট্টগ্রামের বিধ্বস্ত রাস্তাঘাটে বিক্ষিপ্তভাবে খানাখন্দে কিছু ইট-সুরকি ও বালি ফেলে জোড়াতালির মেরামতের নামে ঠিকাদাররা তড়িঘড়ি করে দায়সারা কাজ সেরেছেন এবং সংস্কার কাজ মানসম্পন্ন হচ্ছে না এমনটি অভিযোগও বিভিন্ন এলাকার লোকজন করছেন। নগরীর সবচেয়ে কর্মচঞ্চল এলাকাগুলোর মধ্যে চকবাজার, কাতালগঞ্জ, কাপাসগোলা, মুরাদপুর, বহদ্দারহাট, শোলকবহর, ষোলশহর, নাসিরাবাদ, বাকলিয়া, চাক্তাই, খাতুনগঞ্জ, রাজাখালী, আগ্রাবাদ, সাগরিকা, হালিশহর, পতেঙ্গাসহ বিভিন্ন স্থানে  রাস্তাঘাটের আগের বিধ্বস্ত অবস্থা আরও নাজুক হয়ে গেছে। এ অবস্থায় চরম দুর্ভোগে পড়ছেন প্রতিদিন লাখ লাখ কর্মমুখী মানুষ যাত্রী সাধারণ। যাত্রী সাধারণের সময়মতো গন্তব্যে পৌঁছানো কঠিন হয়ে পড়েছে।   : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন বলেছেন, রায় ঘোষণার আগে মন্ত্রীদের বক্তব্য রায়কে প্রভাবিত করবে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
35595 জন