দুদকের মামলায় কুমিল্লার মেয়র সাক্কুর জামিন
Published : Tuesday, 30 January, 2018 at 12:00 AM
দিনকাল রিপোর্ট    : কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র ও বিএনপি নেতা মনিরুল হক সাক্কু আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন। গতকাল সোমবার উচ্চ আদালতের আদেশে মেয়র মনিরুল হক সাক্কু আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন জানান। ঢাকা মহানগর হাকিম (সিএমএম) শেখ হাফিজুর রহমান সাক্কুর জামিন আবেদন শুনানি করে ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় তার জামিন মঞ্জুর করেন। আদালতে মেয়র সাক্কুর পক্ষে জামিন আবেদনের শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মাসুদ আহম্মেদ তালুকদার। : প্রসঙ্গ, গত ২১ নভেম্বর অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের অভিযোগের মামলার দায় হতে সাক্কুকে অব্যাহতি দেন আদালত। এরপর ৪ জানুয়ারি দুদকের করা রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট রুল জারি করেন।  রুলে বলা হয়েছে, দুদকের মামলা থেকে সাক্কুকে বিশেষ জজ আদালতের দেয়া অব্যাহতির আদেশ কেন অবৈধ ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তার জবাব চাওয়া হয়। একই সঙ্গে এই মামলায় তার জামিন বাতিল করে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়। পাশাপাশি বিচারিক আদালতে সাক্কু জামিন চাইলে জামিনের বিষয়টি বিবেচনা করতে বলা হয়। : এর আগে গত বছর ১৮ এপ্রিল মামলার অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে মেয়র সাক্কুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন ঢাকার সিনিয়র স্পেশাল জজ কামরুল হোসেন মোল্লা। এরপর আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন মেয়র সাক্কু। প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালের ৭ জানুয়ারি অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের অভিযোগে ঢাকার রমনা থানায় মামলাটি করে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক শাহীন আরা মমতাজ। : ২০১৬ সালের ৪  ফেব্রুয়ারি দুদক সহকারী পরিচালক শাহীন আরা মমতাজ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযোগপত্রে মেয়র সাক্কুর বিরুদ্ধে ৪ কোটি ৫৭ লাখ ৭৩ হাজার ৯৩৩ টাকা জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন এবং এক  কোটি ১২ লাখ ৪০ হাজার ১২০ টাকার সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগ আনেন। মামলায় সাক্কুর স্ত্রী আফরোজা জেসমিনও এ মামলায় আসামি ছিলেন। তবে তার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদের অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে অব্যাহতির আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন বলেছেন, রায় ঘোষণার আগে মন্ত্রীদের বক্তব্য রায়কে প্রভাবিত করবে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
35600 জন