রাজশাহীতে ছাত্রলীগ নেতা নিখোঁজ
Published : Tuesday, 30 January, 2018 at 12:00 AM
দিনকাল রিপোর্ট : রাজশাহী নগরের ২০ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি মহসিন সরদার (২৭) গত রবিবার সকাল থেকে ‘নিখোঁজ’ রয়েছেন। মহসিনকে অপহরণ করা হয়েছে বলে আশঙ্কা করছেন তার পরিবারের সদস্যরা। এ নিয়ে গত রবিবার রাতে নগরের বোয়ালিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন তার ছোট বোন। মহসিনের বাড়ি নগরের বোয়ালিয়াপাড়া মহল্লায়। তার বাবার নাম মজিবর সরদার। পুলিশ বলছে, মহসিন রাজশাহীর বাইরে অবস্থান করছেন। পুলিশ তার অবস্থান জানার চেষ্টা করছে। মহসিনের ছোট বোন মুন্নি খাতুন জানান, রবিবার সকাল ৯টার দিকে তার ভাই বাসা থেকে বের হন। যাওয়ার সময় বলে যান, এক ব্যক্তির কাছে তিনি প্রায় এক লাখ টাকা পাবেন, সেটি আনতে যাচ্ছেন। এরপর তিনি আর বাড়ি ফেরেননি। পরে মুঠোফোনে খুদে বার্তা পাঠিয়ে জানান, তিনি বিপদে আছেন। বেলা ১১টার দিকে প্রথমে মহসিনের বন্ধু জুয়েল রানা এবং কয়েক মিনিট পর ছোট বোন মুন্নি খাতুনকে এই খুদে বার্তা পাঠানো হয়। জুয়েলের কাছে পাঠানো খুদে বার্তায় লেখা হয়, ‘আমি বুঝতে পারছি না আমার কী হতে যাচ্ছে। তবে মনে হচ্ছে, খুব বড় বিপদে পড়তে যাচ্ছি। যদি আমার কিছু হয়ে যায় তাহলে তোর কাছে আমার অনুরোধ, কিস্তি দুটো চালাস তুই, অটোরিকশার টাকা দিয়ে। আমার মাকে কিস্তির চাপটা দিস না ভাই। জুয়েল জানান, তিনি এবং তার বন্ধু মহসিন সরদার ঋণ নিয়ে ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিকশা কিনেছেন। খুদে বার্তায় মহসিন ওই ঋণের টাকা পরিশোধের ব্যাপারেই লিখেছেন। : এদিকে বোন মুন্নি খাতুনের মুঠোফোনে যে খুদে বার্তা পাঠানো হয়, তাতে লেখা হয়েছে, ‘বোনরে, পারলে আমাকে ক্ষমা করে দিস। কিস্তিটা আমার অটোরিকশার টাকা থেকে জুয়েলকে চালাতে বলেছি। আমি বড় বিপদে আছিরে বোন। জানি না আমার কী হবে! সবাইকে দেখে রাখিস। বড় একটা বিপদে পড়েছি আমি। মুন্নি খাতুন বলেন, মহসিন যে ব্যক্তির কাছে পাওনা টাকা আনতে গিয়েছিলেন, সেখানেই কোনো বিপদ হয়েছে বলে তিনি মনে করছেন। রাজনৈতিক কারণে তার ভাইকে অপহরণের মতো কোনো ঘটনা এটি নয় বলেও তিনি মনে করেন। : জানতে চাইলে নগরের বায়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমান উল্লাহ গতকাল সোমবার দুপুর ১২টার দিকে বলেন, মহসিনের মুঠোফোনটি কখনো খোলা পাওয়া যাচ্ছে, আবার কখনো বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। তাদের ধারণা, মহসিন রাজশাহীর বাইরে অবস্থান করছেন। তার সন্ধান চালাচ্ছে পুলিশ। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন বলেছেন, রায় ঘোষণার আগে মন্ত্রীদের বক্তব্য রায়কে প্রভাবিত করবে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
35605 জন