হারিয়ে যাচ্ছে অতিথি পাখি উপকূলীয় এলাকা থেকে
Published : Sunday, 4 February, 2018 at 12:00 AM
মোঃ হাফিজুর রহমান, (রাঙ্গাবালী) পটুয়াখালী থেকে : হারিয়ে যাচ্ছে রাঙ্গাবালী উপকূলীয় এলাকা থেকে অতিথি পাখি। আগের মত এখন আর দেখা যায় না সুদূর সাইবেরিয়া, অস্ট্রেলিয়া থেকে উড়ে আসা প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষাকারী অতিথিদের। শীত মৌসুম এলেই দলে দলে অতিথি পাখির আগমন ঘটতো উপকূলীয় এলাকায়। নদী-নালা, বিল-ঝিল, হাওর-বাঁওড়ে দেখা যেত অসংখ্য পাখির বিচরণ। গত বছর থেকে তেমন আর দেখা যায় না। বছর দুয়েক আগেও ঝাঁকে ঝাঁকে বালিহাঁস, সরাইলসহ অন্তত ৫ প্রজাতির পাখি ভিন্ন ভিন্ন দলে উড়ে যেত এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায়, এক নদী থেকে অন্য নদীতে, হাওর-বাঁওড়, বিল-ঝিলে। কুয়াশাঘন ভোররাতে পুব আকাশ পরিষ্কার হতে না হতেই পাখিরা দলবেঁধে উড়ে আসতো লোকালয়ের বিলে, পড়ে থাকা ধান খেয়ে উদরপুরতি করতে। উদরপুরতি করে সকাল ৮/৯টার দিকে আবার দলবেঁধে উড়ে যেত উপকূলের বিভিন্ন নদ-নদীতে। তাদের কিচিরমিচির শব্দে মুখরিত হয়ে উঠতো এলাকা। বিকেল গড়িয়ে আসলেই আবার শুরু হতো একই জায়গায় তাদের আগমন। সন্ধ্যা না হতেই দলবেঁধে উড়ে যেত তাদের আস্তানা বিভিন্ন ডুবোচরসহ জেগে ওঠা চরগুলোতে। এর মাঝে কিছু অসাধু শিকারি ফাঁদ পেতে ও বন্দুক দিয়ে শিকার করতো অতিথিদের। তবে এতেই যে হারিয়ে যেতে শুরু করেছে অতিথিরা, তেমনটা মনে করছেন না উপকূলবাসী। পাখিপ্রেমী বিজ্ঞজনরা বলছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণেই হয়তোবা অতিথিদের হারিয়ে ফেলতে শুরু করেছি আমরা। যে অতিথি পাখির কিচিরমিচির শব্দে ঘুম ভাঙতো উপকূলীয় এলাকার মানুষের, যাদের কোলাহলে মুখরিত হয়ে উঠতো বিল-ঝিল হাওর-বাঁওড়, আজ হারিয়ে যাচ্ছে উপকূলীয় এলাকা থেকে সেই অতিথিরা। অদূর ভবিষ্যতে একেবারে বিলীন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা মোটেই এড়িয়ে যাওয়া যায় না। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বিএনপি নেতাকর্মীদের গণগ্রেফতার করা হচ্ছে না। আপনি তার সঙ্গে একমত?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
33994 জন