নড়াইলের সরকারি জমি দখলের অভিযোগ আ’লীগের বিরুদ্ধে
Published : Sunday, 4 February, 2018 at 12:00 AM
কালিয়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : নড়াইলের কালিয়ার কলাবাড়িয়া ইউনিয়ন কৃষি অফিসের ভবন ও ইউনিয়ন এলএসডি খাদ্য গুদামসহ প্রায় এক একর সরকারি ও নদী শিকস্তির জমি দখল করে ওই ইউপির আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান মাহামুদুল হাসান কায়েস স্থানীয়দের কাছে বিক্রি অর্থ বাণিজ্য চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আর লিজ গ্রহীতারা ওইসব ভবনজুড়ে ও সরকারি জমিতে চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে নির্বিঘেœ ভবনসহ মার্কেট নির্মাণ করে চলেছে। : চেয়ারম্যান কায়েস ওইসব সরকারি জমিতে ২০টি দোকানের জায়গা বিক্রি করে ও সরকারি মূল্যবান বৃক্ষাদি বিক্রি করে অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওইসব অপকর্মের বিচারের দাবিতে কলাবাড়িয়া ইউপির ৭ জন সদস্য জেলা প্রশাসকের বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন। এবং ওই ইউনিয়নের উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা গত বৃহস্পতিবার রাতে ১৫ জন অবৈধ দখলদারের বিরুদ্ধে উপজেলার নড়াগাতি মামলা করলেও উপজেলা কৃষি বিভাগ ও খাদ্যগুদামের ভবন দখলের বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা পালন করছে রহস্যজনক নীরবতা। : ইউনিয়ন উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা আসাদুজ্জামানের দায়েরকৃত মামলার বিবরণে জানা যায়, কলাবাড়িয়া মৌজার ১ নম্বর খাস খতিয়ানের ৪৫১৩ দাগের নদী শিকস্তির ৬.৭৫ একর সরকারি জমি অবৈধভাবে জবরদখল করে আধাপাকা টিনশেড ঘর নির্মাণ করেছে ও করছে। কাইউম শিকদারসহ কলাবাড়িয়া ইউনিয়নের ৭ জন সদস্যের নড়াইলের জেলা প্রশাসক বরাবরে দাখিলকৃত অভিযোগে জানা যায়, ইউনিয়ন পরিষদের নাম ভাঙ্গিয়ে চেয়ারম্যান কায়েস ক্ষমতার অপব্যবহার করে কলাবাড়িয়া মৌজার ১ নম্বর খাস খতিয়ানের ৪৫১৩ দাগের নলীয়া নদীর জমি ও ৪১৫১ দাগের উপর অবস্থিত ইউনিয়ন কৃষি অফিস ও খাদ্য গুদামের ভবনসহ সরকারি জায়গা দখল করে ২০টি দোকানের প্লট বিক্রি করে এবং সরকারি গাছ ও নলকূপ বিক্রি করে ২২ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। : ওইসব সরকারি ভবন ও জমি দখল করে কায়েসের সহযোগিতায় ক্রেতারা অধাপাকা টিনশেড ও ভবন নির্মাণ করেছেন বলে অভিযোগে বলা হয়েছে। :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বিএনপি নেতাকর্মীদের গণগ্রেফতার করা হচ্ছে না। আপনি তার সঙ্গে একমত?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
33995 জন