উত্তপ্ত রাজনীতি পর্যবেক্ষণ করছেন কূটনীতিকরা
Published : Sunday, 4 February, 2018 at 12:00 AM, Update: 03.02.2018 11:10:01 PM
দিনকাল রিপোর্ট : বাংলাদেশের রাজনীতির উত্তপ্ত পরিস্থিতি এবং বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মামলার বিচার প্রক্রিয়ার গতি-প্রকৃতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে বিদেশি  কূটনীতিকরা। বাংলাদেশে যুক্তরাজ্য দূতাবাস কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে জানান, ‘আমরা বেগম খালেদা জিয়ার মামলার বিচার প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণ করছি। একই সঙ্গে রায়ের জন্য অপেক্ষায় আছি। আইনকে সম্মান করা ও সহিংসতা পরিহারের জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানাই।’ এদিকে ঢাকাস্থ যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘আইনগত প্রক্রিয়া চলমান থাকায় এ নিয়ে আমরা কোনো মন্তব্য করব না।’ ইউরোপীয় ইউনিয়ন দূতাবাসও বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলার বিচার প্রক্রিয়া নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি। তবে সেখানকার একজন কর্মকর্তার ভাষ্য, ‘ইউরোপীয় ইউনিয়ন সংসদ থেকে ১৭ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল এ মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে ঢাকা সফর করবে। তখন তারা এ বিষয়ে বক্তব্য রাখতে পারেন।’ ওই কর্মকর্তা আরো জানান, ইউরোপীয় ইউনিয়ন সংসদ সদস্যদের সঙ্গে বেগম খালেদা জিয়ার বৈঠকের কথা রয়েছে। বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় দেয়ার দিন ধার্য করা হয়েছে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি। এই রায় তার বিপক্ষে গেলে আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ তার জন্য অনিশ্চিত হয়ে পড়তে পারে। : সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার ক্ষেত্রে অযোগ্যতার বিষয়ে বাংলাদেশের সংবিধানের বিধান হচ্ছেÑ নৈতিক স্খলনজনিত কোনো ফৌজদারি অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়ে সর্বনিম্ন দুই বছরের কারাদন্ড হলে ও মুক্তিলাভের পর পাঁচ বছর না গেলে প্রার্থী হওয়া যাবে না। তবে বিচারিক আদালতের রায় যদি স্থগিত করে আপিলের জন্য আপিল আদালত গ্রহণ করে তাহলে নির্বাচনে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে ওই অনুচ্ছেদ বাধা নয়। জিয়া অরফানেজ মামলাটি করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় এটি দায়ের করা হয়। ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট বিবাদীদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক। ওই অভিযোগপত্রে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া, বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, সাবেক মুখ্য সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমানকে বিবাদী করা হয়। ২০১১ সালের ৮ আগস্ট বেগম খালেদা জিয়াসহ চার জনের বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলাটি দায়ের করে দুদক। এ বিষয়ে ২০১২ সালের ১৬ জানুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক। মামলায় বিএনপি নেতা হারিছ চৌধুরী ও তার তৎকালীন একান্ত সচিব জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খানকে বিবাদী করা হয়। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বিএনপি নেতাকর্মীদের গণগ্রেফতার করা হচ্ছে না। আপনি তার সঙ্গে একমত?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
33947 জন