বেসরকারি চিকিৎসা সেবা নিয়ন্ত্রণহীন : টিআইবি
Published : Thursday, 8 February, 2018 at 12:00 AM, Update: 07.02.2018 10:53:50 PM
বেসরকারি চিকিৎসা সেবা নিয়ন্ত্রণহীন : টিআইবিদিনকাল রিপোর্ট : দেশের বেসরকারি স্বাস্থ্যসেবায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা আনতে এবং উচ্চ মুনাফা বন্ধে কমিশন গঠনের দাবি জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআইবি)। সংস্থাটি বলেছে, বেসরকারি স্বাস্থ্যসেবা খাতের বিধিমালা না থাকা এবং আইনের হালনাগাদ না হওয়াতে উচ্চ মুনাফার জন্য বেসরকারি চিকিৎসাসেবা কেন্দ্রগুলোতে ব্যবসা চলছে, সেবা গ্রহীতাকে জিম্মি করে অতিরিক্ত মুনাফা আদায় করা হচ্ছে। : গতকাল বুধবার রাজধানীতে টিআইবির গবেষণা ‘বেসরকারি চিকিৎসাসেবা সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণের উপায়’ শীর্ষক গবেষণাপত্র উপস্থাপনের সময় এ কথা বলা হয়। সংস্থাটি বলছে, সরকারি চিকিৎসাসেবার েেত্র চাহিদা বেশি কিন্তু সরবরাহ নেই। তাই সুযোগ সঠিকভাবে না মেলায় অধিক খরচ করে বেসরকারি চিকিৎসাসেবার দিকে ঝুঁকছে সাধারণ মানুষ। কিন্তু সেখানেও বাণিজ্যিক মুনাফাই মূল বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বলেন, বাংলাদেশে ৬০ শতাংশের বেশি মানুষ বছরে বেসরকারি খাত থেকে স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে থাকে। কিন্তু সেখানেও বাণিজ্যিক মুনাফাই মূল বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। যেহেতু স্বাস্থ্য খাত সে কারণে সেবা গ্রহীতাদের জিম্মি করে অতিরিক্ত মুনাফা অর্জন করা খুবই সহজ। ইফতেখার বলেন, ‘এই ধরনের ব্যক্তিমালিকানাধীন খাতের নিয়ন্ত্রণের পুরো দায়িত্ব : সরকারের হাতে অর্পিত থাকা সরকারের জন্য একটা বোঝা। স্বচ্ছতা, নিরপেতা ও বস্তুনিষ্ঠতা নির্ধারণ করা অনেক সময় সম্ভব হয় না। সে কারণে অন্য দেশের অভিজ্ঞতার আলোকে আমাদের দেশে এই খাতে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা জন্য একটা কমিশন গঠন করা যেতে পারে।’ ইফতেখারুজ্জামান বলেন, চাহিদার বিপরীতে সরবরাহের ব্যবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু এ সংক্রান্ত আইনের ঘাটতির কারণে মুনাফাভিত্তিক চিকিৎসা ব্যবস্থা চালু হয়েছে। সেখানে আইনের নীতি প্রয়োগের ঘাটতি এবং নিয়ন্ত্রণ ও তদারকিতে ব্যাপক ঘাটতি রয়েছে। ফলে দেশের বেসরকারি স্বাস্থ্যসেবায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নেই। টিআইবির নির্বাহী পরিচালক বলেন, এই খাতেও সরকারি খাতের চিকিৎসকদের ওপর নির্ভরশীলতা রয়েছে এবং এ কারণে দুটি ত্রেই তিগ্রস্ত হয়। সরকারি সেবা খাতেও পর্যাপ্ত সেবা তারা দিতে পারছেন না আবার বেসরকারি খাতে যখন আসছেন মানসম্পন্ন চিকিৎসা দিতে পারছেন না। : সংস্থাটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান সুলতানা কামাল বলেন, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার ল্েয সরকারি খাতের বাইরে বিস্তৃত হয়েছে বেসরকারি খাতও। কিন্তু কোনো আইন না থাকায় ও সরকারের উদাসীনতায় এখানে কোনো নেই নিয়ন্ত্রণ। সরকার এই প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি কোনো তদারকিই রাখছে না। কারণ সেই রকম কোনো তদারকির চিহ্ন আমরা দেখতে পাচ্ছি না। নিয়ন্ত্রণ না থাকায় বেসরকারি স্বাস্থ্যসেবা খাতের দুর্নীতি ও অনিয়মরোধে সরকার ব্যর্থ হয়েছে। বেসরকারি চিকিৎসা খাতের অনিয়মের বেশ কয়েকটি দিক তুলে ধরে টিআইবির প থেকে বলা হয়েছে, বেসরকারি খাতে স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ নেই। নিয়মিত তদারকি না থাকায় সেবার অতিরিক্ত মূল্য, চিকিৎসার নামে সম্পূর্ণ মুনাফাভিত্তিক বাণিজ্য হচ্ছে। বর্জ্য ব্যবস্থাপনাও সঠিকভাবে প্রক্রিয়াজাত করা হচ্ছে না। এছাড়া অনেক সময় চিকিৎসার নামে প্রয়োজনের তুলনায় আরও বেশি ব্যয়সম্মত চিকিৎসা রোগীদের অফার করা হচ্ছে। গবেষণা প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করেন টিআইবির রিসার্চ অ্যান্ড পলিসি বিভাগের প্রোগ্রাম ম্যানেজার তাসলিমা আক্তার ও ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার মো. জুলকারনাইন। : : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

সুজন নেতৃবৃন্দ বলেছেন, সড়কে ভিআইপি লেনের প্রস্তাব বৈষম্যমূলক। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
22378 জন