কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ!
শরণখোলায় বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে বেড়িবাঁধ
Published : Friday, 9 February, 2018 at 12:00 AM
শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : বাগেরহাটের শরণখোলায় বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে নির্মিত পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়িবাঁধের জমি অধিগ্রহণের কোটি কোটি টাকা জালিয়াতির মাধ্যমে হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এভাবে একটি চক্র একজনের জমি আরেকজনের নামে, ফাঁকা জমিতে গাছপালা ও ঘরবাড়ি দেখিয়ে সংশ্লিষ্টদের ম্যানেজ করে সরকারের বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাতের পাঁয়তারা করছে। এ কারণে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তরা ক্ষতিপূরণ থেকে বঞ্চিত হতে চলেছেন। গত বুধবার দুপুরে শরণখোলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীরা এ অভিযোগ করেন। ক্ষতিগ্রস্তদের পক্ষে মো. মেহেদী হাসান লিখিত বক্তব্যে জানান, শরণখোলার ৩৫/১ পোল্ডারের বেড়িবাঁধ নির্মাণের জন্য উপজেলার ৬নং আমড়াগাছিয়া মৌজার রাজৈর অংশে ভূমি অধিগ্রহণের কাজ শুরু করলে একটি জালিয়াত চক্র সক্রিয় হয়ে ওঠে। বাঁধের অংশে থাকা ঘরবাড়ি, গাছপালার তালিকা সম্পন্ন হওয়ার পর ওই জালিয়াত চক্রের মূল হোতা মিজানুর রহমান আকন ফাঁকা জায়গায় রাতারাতি ২০-২৫টি ঘর নির্মাণ করে। জরিপকারীদের সঙ্গে যোগসাজশে অন্যের জমি, ঘরবাড়ি, গাছপালা নিজের ও তার আত্মীস্বজনের নাম জরিপ তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করায়। ইতিমধ্যে মিজানুর রহমান আকন বাগেরহাটের জেলা প্রশাসকের ভূমি অধিগ্রহণ শাখা থেকে প্রায় কোটি টাকা চেক পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে। মেহেদী হাসান জানান, তার মামা আলমগীর হোসেনের নামের ৬০৫ নম্বর খতিয়ানের ৪৭১৫ নম্বর দাগের জমিতে থাকা ঘর প্রতারক মিজানুর রহমান আকন গোপনে তার ভাই এমাদুল আকনের নামে এবং ওই জমির গাছপালা তার আত্মীয় পলাশ হাওলাদারের নামে ক্ষতিগ্রস্ত হিসেবে তালিকাভুক্ত করায়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত মো. সুলতান হাওলাদার জানান, তার ৬০৫ নম্বর খতিয়ানের ৫৩৯৩ দাগের জমিতে কোনো ঘর বা গাছপালা নেই। অথচ গত ২৪ জানুয়ারি জেলা ভূমি অধিগ্রহণ থেকে তার নামে ঘরবাড়ির মূল্য বাবদ ২ লাখ ৩৮ হাজার ৯০৮ টাকার একটি নোটিশ পেয়ে হতবাক হন। পরে তিনি জানতে পারেন মিজানুর রহমান আকন তার জমিতে ঘরবাড়ি দেখিয়ে ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তাদের সঙ্গে গোপন যোগসাজশে ওই টাকা আত্মসাতের চেষ্টা চালাচ্ছে। এ ছাড়া রাজৈর এলাকার জামাল উদ্দিন রোকা, রুপিয়া বেগম ও সাইফুল ইসলাম জানান, তাদের মতো বহু মানুষের জমি, ঘরবাড়ি, গাছপালা তাদের আত্মীয়স্বজনের নামে অধিগ্রহণের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে প্রায় কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার চক্রান্ত করছে। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

ভারতীয় মিডিয়া বলেছে, বাংলাদেশে অস্থিরতা ছড়িয়ে পড়তে পারে। আপনিও কি তেমন আশঙ্কা করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
4606 জন