গফরগাঁওয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা
পরীক্ষা দিতে পারেনি অর্র্ধশত এসএসসি পরীক্ষার্থী
Published : Friday, 9 February, 2018 at 12:00 AM, Update: 08.02.2018 9:03:21 PM
এম. কামরুজ্জামান, গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) থেকে : ময়মনসিংহের গফরগাঁও রৌহা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সদ্য আওয়ামী লীগ নেতা মারুফ আহমেদের প্রতারণায় ফাঁদে পড়ে অর্র্ধশতাধিক এসএসসি পরীক্ষার্থীর প্রবেশপত্র না পাওয়ায় তারা পরীক্ষা দিতে পারেনি। বিক্ষুব্ধ পরীক্ষার্থীরা গত বৃহস্পতিবার সকালে থানা ঘেরাও, পরীক্ষা কেন্দ্রের সামনে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করে। প্রধান শিক্ষক বিক্ষোভের খবর পেয়ে গা ঢাকা দিয়ে হয়েছেন লাপাত্তা। এ ধরনের প্রতারণার ঘটনায় বীর মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস আলী বাদী হয়ে প্রধান শিক্ষক মারুফ আহমেদ ও প্রধান শিক্ষিকা ইয়াসমিন সুলতানা পপিসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে গফরগাঁও থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এরপর থেকে আসামিরা পলাতক রয়েছেন। জানা যায়, উপজেলার রৌহা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মারুফ আহমেদ তার বিদ্যালয় থেকে চলতি এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য ৫৩ শিক্ষার্থীর ফরম পূরণ করান। তার মধ্যে রৌহা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৫ জন শিক্ষার্থী এবং উথুরী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৮ জন শিক্ষার্থী। উথুরী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নবম-দশম শ্রেণীতে পাঠদানের অনুমতি না থাকায়  এই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা ্ইয়াসমিন সুলতানা পপিকে ছাত্রপ্রতি মাত্র সাড়ে ৮ হাজার টাকার বিনিময়ে রৌহা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে রেজিস্ট্রেশন ও ফরম পূরণ করে দেয়ার আশ্বাস দেন সদ্য আওয়ামী লীগ নেতা ও প্রধান শিক্ষক মারুফ আহমেদ। প্রধান শিক্ষকের কথার ফাঁদে পড়ে উথুরী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৮ জন শিক্ষার্র্থী দেড় লাখ টাকার বিনিময়ে রৌহা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ফরম পূরণ করে। রৌহা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৫ জন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ফরম পূরণের নামে মারুফ আহমেদ আদায় করেন আরো প্রায় দেড় লাখ টাকা। সদ্য আওয়ামী লীগ নেতার প্রতারণার শিকার হয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে না পারা শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা মারুফের বিচারের দাবিতে গত বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে থানা ঘেরাও করে। গত বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে ইসলামিয়া হাইস্কুল কেন্দ্রের সামনে বিক্ষোভ মিছিল করে তারা। সরকারি কলেজ পরীক্ষা ভেন্যুর সামনে সড়ক অবরোধ করে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উপস্থিত হয়ে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের শান্ত করেন। উথুুরী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী উপজেলার উথুরী গ্রামের ধামাইল  গ্রামের সজিব, হাজেরা, ঝুমুর, শামছুন্নাহার, স্বর্র্ণা, মিম, জান্নাত জানায়, উথুরী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইয়াসমিন সুলতানা পপির মাধ্যমে রৌহা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ করি। কিন্তু আমরা কেউ পরীক্ষার প্রবেশপত্র পাইনি। আমরা পরীক্ষা দিতে পারছি না। : উল্লেখ্য, গত ২০১১ সাল থেকে প্রতি বছর এসএসসি পরীক্ষার সময় আওয়ামী লীগ নেতা রৌহা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মারুফ আহমেদ এই রকম বহু অপকর্র্ম ও প্রতারণা করলেও শিক্ষা বোর্ড ও গফরগাঁও উপজেলা প্রশাসন তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় তিনি টাকার লোভে বেপরোয়া হয়ে উঠেন। তিনি ২০১১ সাল থেকে শুরু করে ২০১৭ সাল পর্যন্ত বিভ্ন্নি স্কুল থেকে আসা ও গফরগাঁও উপজেলার অনেক বহিরাগত শিক্ষার্থীকে ভুয়া ফরম পূরণ করে প্রতারণা করছেন। : :





দেশের পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

ভারতীয় মিডিয়া বলেছে, বাংলাদেশে অস্থিরতা ছড়িয়ে পড়তে পারে। আপনিও কি তেমন আশঙ্কা করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
4644 জন