তার ন্যায় বিচার নিশ্চিত করতে হবে : যুক্তরাষ্ট্র
খালেদা জিয়াকে আটকের ঘটনায় জাতিসংঘ মহাসচিবের উদ্বেগ
Published : Saturday, 10 February, 2018 at 12:00 AM, Update: 09.02.2018 11:11:05 PM
দিনকাল ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রায় এবং রায়-পরবর্তী ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসংঘ। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতিসংঘ সদর দফতরে দেয়া নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব কথা জানান জাতিসংঘ মহাসচিবের ডেপুটি মুখপাত্র ফারহান হক। নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ের শুরুতেই প্রশ্নোত্তর পর্বে বাংলাদেশের সর্বশেষ পরিস্থিতি তুলে ধরেন জাতিসংঘ সংবাদদাতা ইমরান আনসারী। এ সময় তিনি বলেন, আপনি নিশ্চয়ই জানেন যে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী দলের প্রধান নেতা বেগম খালেদা জিয়াকে দুর্নীতির মামলায় দন্ডিত করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এ রায়ের প্রতিবাদ জানাতে লাখ লাখ মানুষ রাস্তায় নেমে এসেছে। প্রতিবাদ বিক্ষোভ বন্ধে সরকার ১৪৪ ধারা জারি করেছে। তাজা গুলিবর্ষণ করা হচ্ছে। গণমাধ্যমের রিপোর্ট অনুসারে, হাজারো নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। আপনি আরো জেনে থাকবেন যে, আগামী ডিসেম্বরে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন, বেগম খালেদা জিয়া ও তার পুত্র তারেক রহমানকে নির্বাচন থেকে বিচ্ছিন্ন করতেই এ রায় দেয়া হয়েছে। এমনি বাস্তবতায় জাতিসংঘ মহাসচিব এ বিষয়ে কোনো উদ্যোগ নিয়েছেন কি না? এছাড়া রাজনৈতিক এ সংকট নিরসনে তিনি কোনো বিশেষ দূত বাংলাদেশে পাঠাবেন কি না? জবাবে ফারহান হক বলেন, বিষয়টি মাত্রই আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। খালেদা জিয়ার আটকের বিষয়টি উদ্বেগজনক। বিষয়টির পেছনে কী আছে তা আমরা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করে দেখছি। এ বিষয়ে জাতিসংঘ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিক্রিয়া জানাবে। তিনি আরো বলেন, আমরা সহিংসতার জন্য উদ্বেগ প্রকাশ করছি। উভয়পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি। সাংবাদিক মুশফিকুল ফজল আনসারী জানতে চান, বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে এ রায়ের পর আর কি কোনো আশা আছে বাংলাদেশে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়ার? জবাবে ফরহান হক বলেন, এ রায়ের প্রভাব কী হবে তা আমরা বিচার- বিশ্লেষণ করে দেখছি। তবে বাংলাদেশে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের পক্ষে জাতিসংঘের অবস্থান। সাংবাদিক মাথিউ জানতে চান, বাংলাদেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে প্রায়ই অভিযোগ শোনা যায়, বিক্ষোভ দমাতে তারা তাজা বুলেট ব্যবহার করে। আবার এসব সদস্যের শান্তিরক্ষী মিশনে মোতায়েন করা হয়। জবাবে ফরহান বলেন, শান্তিরক্ষী মিশনে মোতায়েনের ক্ষেত্রে জাতিসংঘ তার মানদন্ড বজায় রেখে চলে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার সাজার বিষয়টি আগামী নির্বাচনে কতটা প্রভাব ফেলবে তা এত দ্রুত বলা সম্ভব নয়। কিন্তু আমরা বাংলাদেশে সমন্বিত এবং গণতান্ত্রিক উপায় অবলম্বনের প্রতি বরাবরই জোর দিয়ে যাব। আমরা সব পক্ষকেই শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানাচ্ছি। এছাড়া জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদন্ডাদেশের ঘটনায় দেশে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস। : ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে  যুক্তরাষ্ট্র : বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে সরকারের দায়েরকৃত মামলায় ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার আহবান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। গত বৃহস্পতিবার বিএনপি চেয়ারপারসনের কারাগারে প্রেরণ প্রসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র স্টেট ডিপার্টমেন্টের অন্যতম মুখপাত্র নোয়েল ক্লে দেয়া  প্রতিক্রিয়ায় জানান। বাংলাদেশের প্রধান বিরোধীনেত্রী ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে আদালতের মাধ্যমে রায় প্রদান করে জেলে পাঠানো হয়েছে। বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকেও সাজা দেয়া হয়েছে। শত শত বিরোধী নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। চলছে গুম-খুনের মতো ঘটনা। কেননা দেশটি শুরু থেকে বাংলাদেশে সহনশীল রাজনীতি এবং অংশগ্রহণমূলক অবাধ নির্বাচনের কথা বলে আসছিল। জবাবে লিখিত প্রতিক্রিয়ায় স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র বলেন, আমরা বিএনপিপ্রধান খালেদা জিয়ার রায়ের বিষয়ে অবগত হয়েছি এবং বাংলাদেশকে তার ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার আহবান জানাচ্ছি। বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ব্যাপক গ্রেফতারে উদ্বেগ প্রকাশ করে ওই মুখপাত্র বলেন, আমরা আটককৃত সকল ব্যক্তি বিশেষের ওপর ন্যায়বিচার নিশ্চিতের আহবান পুনর্ব্যক্ত করছি। সকল নাগরিককে তাদের শান্তিপূর্ণ সভা-সমাবেশ এবং স্বাধীন মত প্রকাশের নিশ্চয়তা বিধানেরও আহবান জানান তিনি। নোয়েল বলেন, ভয়ভীতিহীন অবস্থায় দেশের মানুষ যাতে তাদের রাজনৈতিক মত প্রকাশ করতে পারে এবং আসন্ন নির্বাচন যাতে দেশের মানুষের প্রত্যাশা অনুযায়ী অবাধ, নিরপেক্ষ, শান্তিপূর্ণ এবং গ্রহণযোগ্য হয় সে ব্যবস্থা সরকারকেই নিশ্চিত করতে হবে। সংঘাত-সহিংসতা পরিহার করে সকল পক্ষকে শান্তিপূর্ণ ও দায়িত্বশীল উপায়ে গণতান্ত্রিক চর্চা সমুন্নত রাখার আহবান জানান অন্যতম মুখপাত্র নোয়েল ক্লে। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, মন্ত্রীদের বক্তব্যের সঙ্গে রায়ের হুবহু মিল রয়েছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
7076 জন