রাজপথে বিক্ষোভে মানুষের ঢল
পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে সারাদেশে বিএনপির বিক্ষোভ ॥ বিভিন্ন স্থানে পুলিশের হামলা ॥ আজ দেশব্যাপী প্রতিবাদ সমাবেশ
Published : Saturday, 10 February, 2018 at 12:00 AM, Update: 09.02.2018 11:10:35 PM
রাজপথে বিক্ষোভে মানুষের ঢলদিনকাল রিপোর্ট : বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা, ভুয়া ও জাল নথির মাধ্যমে সাজানো রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলায় আদালত কর্তৃক সাজা প্রদানের বিরুদ্ধে বিএনপির উদ্যোগে রাজপথে বিক্ষোভে মানুষের ঢল নামে। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে গতকাল শুক্রবার বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম থেকে শুরু হয়ে লাখো মানুষের বিশাল বিক্ষোভটি ফকিরাপুল, নয়াপল্টন হয়ে কাকরাইল গিয়ে শেষ হয়। এদিকে  ঢাকাসহ সারা দেশে পুলিশি হামলা, মামলা, লাঠিচার্জ, আটক উপেক্ষা করে বিএনপির নেতাকর্মীরা এ বিক্ষোভ মিছিল পালন করেন। : রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রায়ের পর দেয়া কর্মসূচি অনুযায়ী জুমার নামাজের পরপর রাজধানীর বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেট থেকে একটি বিশাল মিছিল ফকিরাপুল হয়ে নয়াপল্টনের দিকে আসতে থাকে। এ সময় পুলিশ মিছিলে ধাওয়া দিয়ে বিএনপির কয়েকজন নেতাকর্মীকে আটক করে। এ বিক্ষোভ মিছিলে নেতৃত্ব দেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এছাড়াও বিক্ষোভ মিছিলে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম বাবুল, সহ-সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, সহ যুব বিষয়ক সম্পাদক মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ,  নির্বাহী কমিটির সদস্য রফিক শিকদার, আ ক ম মোজ্জামেল হক, শেখ রবিউল ইসলাম রবি, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, সিনিয়র সহসভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নূরুল ইসলাম নয়ন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এসএম জিলানি, ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন, সহ সভাপতি আবু আতিক আল হাসান মিন্টুসহ হাজার হাজার নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। ঘোষণা অনুযায়ী শুক্রবার বিএনপি নেতাকর্মীদের এ মিছিল ‘শান্তিপূর্ণই’ ছিল। ঢাকা মহানগর পুলিশের মতিঝিল বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শিবলী নোমান বলেছেন,  যেহেতু তারা কোনো আনরুলি অবস্থানে ছিল না, সেজন্য পুলিশও ধৈর্য সহকারে শান্তিপূর্ণ মিছিলকে শান্তিপূর্ণভাবে শেষ করেছে। দৈনিক বাংলা মোড় হয়ে ফকিরাপুল দিয়ে মিছিলটি নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের দিকে যাওয়ার সময় পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। এ সময় মিছিলকারীদের অনেকেই বিভিন্ন গলিতে ঢুকে যান। তবে অল্প সময়ের মধ্যেই : আবারও তারা জড়ো হয়ে নতুন করে মিছিল শুরু করেন। : আমার নেত্রী আমার মা, বন্দি হতে দিব না। ‘খালেদা জিয়ার ?মুক্তি চাই, মুক্তি চাই’, ‘খালেদা জিয়ার কিছু হলে জ্বলবে আগুন সারাদেশে’- ইত্যাদি স্লোগান দিয়ে মিছিলটি যখন বিএনপি কার্যালয়ের সামনে দিয়ে যাচ্ছিল, ওপরে ব্যালকনি থেকে হাততালি দিয়ে তাদের সমর্থন দিতে দেখা যায় সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে। বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এই প্রতিবাদের মিছিল বেশ বড় আকার পায়। পুলিশ সদস্যদের পেছনে রেখে বিএনপিকর্মীরা ওই মিছিল নাইটিঙ্গেল মোড়ের দিকে এগোতে থাকে। এক পর্যায়ে সামনে থেকে পুলিশের আরেকটি দল এগিয়ে এলে সংঘাত এড়াতে মিছিলকারীরা নাইটিঙ্গেল মোড়ের আগেই একটি গলির মধ্যে ঢুকে পড়েন আর তখনই পেছনের পুলিশ সদস্যরা বাঁশি বাজাতে বাজাতে লাঠি হাতে তেড়ে যান। পুলিশের একটি সাঁজোয়া যানও তখন রাস্তায় ছিল। ওই গলি থেকে কয়েকজনকে আটক করে নিয়ে যান পুলিশ সদস্যরা। তবে কতজনকে আটক করা হয়েছে তা জানাতে পারেননি পুলিশ কর্মকর্তা শিবলী নোমান। : ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির বিক্ষোভ : বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে সাজানো রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলায় আদালত কর্তৃক সাজা প্রদানের বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির উদ্যোগে মহানগরের থানায় থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বাড্ডা থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল বাড্ডা লিংক রোড থেকে শুরু হয়ে বাড্ডা সুবাস্তু টাওয়ারের সামনে এসে শেষ হয়। মিছিলে নেতৃত্ব দেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক এজিএম শামসুল হক, মোঃ আবুল হোসেন, মাহফুজুর রহমান চেয়ারম্যান, তহিরুল ইসলাম তুহিন, মাহবুব আলম শাহীন, আব্দুল কাদের বাবু, মিরাজ উদ্দিন বাদল, আব্দুল কাদির, তাজুল ইসলাম, আলী হোসেন চেয়ারম্যান প্রমুখ। মিছিলে থানা বিএনপি ও সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পল্লবী থানা বিএনপি একটি মিছিল কমিশনার মোঃ সাজ্জাদ ও বুলবুল মল্লিকের নেতৃত্বে শুরু হয়। মিছিলে অন্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন মোঃ সোহরাব হোসেন, আবুল কালাম, আমান উল্লাহ আমানসহ বিএনপি ও সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। : তেজগাঁও থানা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, ও এল রহমানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে আরও উপস্থিত ছিলেন মজিবুর রহমান কাজী, ইঞ্জিনিয়ার মিরাজ হায়দার আরজু, আবু জাফর পাটওয়ারী বাবু, শাহ আলম হাওলাদার, হাফিজুর রহমান কবির, নুরুজ্জামান রিপন টগর, কাজী বাবু, সোহেল, জামান হোসেন, রুবেল মামুন, জুয়েলসহ থানা বিএনপি ও সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ। মিছিলটি বিজয় সরণি সড়কে অনুষ্ঠিত হয়। শেরে বাংলা নগর থানা বিএনপির একটি মিছিল সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, শাহ আলম, তোফায়েল আহম্মেদ, আব্দুল কাদের, নাছির, শামীম, ফরিদ, ফারুক, সোহেলসহ থানা বিএনপি ও সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি স্কয়ার হাসপাতালের সামনে থেকে শুরু হয়ে শমরিতা হাসপাতালের সামনে গিয়ে পুলিশি বাধায় পন্ড হয়ে যায়। : মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সহ-সভাপতি আতিকুল ইসলাম মতিন ও সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল রহমানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি মোহাম্মদপুর টাউন হল থেকে শুরু হয়ে আসাদ গেটে গিয়ে শেষ হয়। মিছিল দুজন বিএনপি কর্মীকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায় পুলিশ। মিছিলে ব্যাপক নেতাকর্মীর সমাগম ঘটে। : রামপুরা থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক সাইফুর রহমান মিহিরের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে অংশগ্রহণ করেন জহিরুল ইসলাম ভূইয়া জহির, আহসান হাবিব ডন, মনিরুল ইসলাম, মোর্শেদ আলম বাবু, সাইদুল ইসলাম শাহীন, আহসান হাবিব ডন, রুবেল হক বিসু, রবিউল ইসলাম, মো. স্বপন, আরিফুর রহমান শামীম, লোকমান, আমজাদ হোসেন, হাবিবুর রহমান হাবিবসহ থানা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। : রূপনগর থানা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল রূপনগর আবাসিক এলাকা থেকে শুরু হয়ে দুয়ারীপাড়া গিয়ে শেষ হয়। উপস্থিত ছিলেন আব্দুল আউয়াল, ইঞ্জিঃ মজিবুল হক, এস,এম মজিবুর রহমান, আমজাদ হোসেন মোল্লা, আলী আহমেদ রাজু, হাসান রানা, হাফিজ আহমেদ, কামাল হোসেনসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। : উত্তরখান থানা বিএনপির একটি মিছিল বেপারী রোড থেকে শুরু হয়ে চৌরাস্তা গিয়ে শেষ হয়। পুলিশি বাধায় মিছিলটি পন্ড হয়ে যায়। : বিমানবন্দর থানা বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোঃ নাসির উদ্দিনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল বিমানবন্দর বাজার থেকে শুরু করে চৌরাস্তায় গিয়ে শেষ হয়। আরও উপস্থিত ছিলেন থানা বিএনপির প্রচার সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর, মোঃ দেলোয়ার, মোঃ জুলহাজ, মোঃ লিটনসহ থানা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। : উত্তরা পূর্ব থানা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল এম,এ মনির হাছানের নেতৃত্বে ডি.পি.এস স্কুলের সামনে থেকে শুরু হয়ে রাজউক স্কুলের সামনে এসে শেষ হয়। মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন এস.এম হান্নান মিলন, মোঃ জাহিদ মাস্টার, মোঃ বিল্লাল, জিয়া, প্রিন্স, মাহিদ, মাসুম, আলম, লুৎফরসহ বিএনপি ও সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।    : উত্তরা পূর্ব থানা বিএনপির আরেকটি বিক্ষোভ মিছিল মোঃ মতিউর রহমান মতির নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উত্তরা ৪নং সেক্টর থেকে শুরু হয়ে কিছুদূর অগ্রসর হলে মিছিলটি পুলিশি বাধায় পন্ড হয়ে যায়। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন আকরাম শুভ, সুমন হোসেন, মোঃ লিয়াকত হোসেন খন্দকারসহ নেতৃবৃন্দ। : উত্তরা পশ্চিম থানা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল মোঃ আফাজ উদ্দিনের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। আবদুল্লাহপুর থেকে শুরু হয়ে ১০ নম্বর সেক্টরে এসে শেষ হয়। এসময় থানা বিএনপি ও সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। : উত্তরা পশ্চিম থানা বিএনপির আরেকটি মিছিল হাজী মোঃ জাহাঙ্গীর আলম জাকিরের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মোঃ আলাউদ্দিন, জামাই মোস্তফা, আনোয়ার, শাকিল, মজনু, শাহআলমসহ থানা বিএনপি ও সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ। মিছিলটি উত্তরা ১০নং সেক্টর থেকে শুরু হয়ে চৌরাস্তায় গিয়ে শেষ হয়। : উত্তরা পশ্চিম থানার আরেকটি মিছিল হাজী দুলালের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি হাউজ বিল্ডিং থেকে শুরু হয়ে ৪নং সেক্টরে এসে শেষ হয়। মিছিলে থানা বিএনপি ও সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। : উত্তরা পশ্চিম থানার বিক্ষোভ মিছিল মোস্তফা কামাল হৃদয়ের নেতৃত্বে সাইদগ্রান থেকে হাউজ বিল্ডিং পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন মনছুর আহমেদ, মোঃ সুমন, তোজাম্মেল হক সোহাগ, নাছিরসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। : দারুসসালাম থানা বিএনপির একটি মিছিল ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ মাসুদ খানের  নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি দিয়াবাড়ি বাসস্ট্যান্ড থেকে মাজার রোডে এসে শেষ হয়। মিছিলে হাজী আব্দুর রহমান, হাফিজুল হাসান শুভ্র, আলমগীর হোসেন ভুট্টু, হুমায়ুন কবিরসহ থানা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করে। : দারুসসালাম থানা বিএনপির আরেকটি মিছিল এইচ.এম ইমরান, মোঃ ফারুক হোসেন, নজরুল ইসলাম ও আফজাল হোসেনের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি দিয়াবাড়ি বাসস্ট্যান্ড থেকে মাজার রোডে এসে শেষ হয়। এতে থানা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের  নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। : ভাষানটেক থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল কচুক্ষেত বাজার এর সামনে থেকে শুরু করতে গেলে পুলিশি বাধায় মিছিলটি পন্ড হয়ে যায়। মিছিল থেকে একজনকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। : দক্ষিণখান থানা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল হাজী ক্যাম্প থেকে শুরু হয়ে বিমান বন্দর স্টেশনের নিকট আসলে পুলিশি বাধায় পন্ড হয়ে যায়। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন মোঃ আমিরুল ইসলাম বাবুল, আমানউল্লাহ আমান, জাহাঙ্গীর আলম, মোখলেস দুলাল, জিয়া, গিয়াস, আলী হোসেন, রাজসহ থানা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। : দক্ষিণখান থানা বিএনপির আরেকটি মিছিল দক্ষিণখান বাজার থেকে মোল্লারটেক পর্যন্ত গেলে পুলিশি বাধায় মিছিলটি পন্ড হয়ে যায়। মিছিলে নেতৃত্ব দেন মোঃ ইসমাঈল হোসেন, আলী আকবর আলী, দেওয়ান মোঃ নাজিম উদ্দিন, বাবলু, শাহজালালসহ থানা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। : তুরাগ থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল আবু তাহের খান আবুলের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে আরো অংশগ্রহণ করেন ওমর আলী, রেজাউল করিম, মিছির আলী, আব্দুল আউয়াল, মোয়াজ্জেম, বকুলসহ থানা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। মিছিলটি ৫নং সেক্টর থেকে শুরু হয়ে ২নং সেক্টরে পৌছালে পুলিশি বাধায় মিছিলটি পন্ড হয়ে যায়। : শাহ আলী থানা বিএনপির সহ-সভাপতি ফেরদৌসি আহমেদ মিষ্টির নেতৃত্বে একটি বিশাল মিছিল চিড়িয়াখানা রোডে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে যুবদল উত্তরের সাংগঠনিক সম্পাদক জগলুল পাশা পাভেল, ছাত্রদল পশ্চিম এর সভাপতি ইয়াসির আরাফাতসহ বিএনপি এবং অন্যান্য সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। : খিলক্ষেত থানা বিএনপির একটি মিছিল থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক ফজলুর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে খিলক্ষেত থানা বিএনপি সোহরাব হোসেন ও সি এম আনোয়ারসহ বিএনপি ও সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। : ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ও কাফরুল থানা বিএনপির আহবায়ক মোয়াজ্জেম হোসেন মতি এবং উত্তর বিএনপির সহ-সম্পাদক আশরাফুজ্জাহান জাহানের নেতৃত্বে একটি মিছিল রোকেয়া সরণি থেকে শুরু হয়ে তালতলায় অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। : ঢাকা মহানগর দক্ষিণের অন্তর্গত ধানমন্ডি থানা বিএনপির বিক্ষোভ : বিএনপি চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট  মামলার মিথ্যা  রায়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ধানমন্ডি থানা বিএনপি। গতকাল শুক্রবার ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শেখ রবিউল আলম রবির নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি ল্যাবএইড থেকে শুরু করে গ্রীন রোড হয়ে সেন্টাল রোডে গিয়ে শেষ হয়। এতে  বিএনপি নেতা কাবিরুল হায়দার চৌধুরী, হাবিবুর রহমান হাবিব, সৈকত, লুৎফর রহমান, জামাল হোসেন, রুহুল আমিন, মো. হানিফসহ শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। : বেগম খালেদা জিয়া সাজা দেওয়ায় সৌদি বিএনপির প্রতিবাদ সভা : বিএনপি চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট  মামলার মিথ্যা  রায়ের প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক  প্রতিবাদ সভা করেছে সৌদি আরব শাখা বিএনপি। বৃহস্পতিবার জেদ্দায়। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সৌদি আরব বিএনপির সভাপতি আহমেদ আলী মুকিবের  সভাপতিত্ব ও সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান তফনের পরিচালনায় প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলÑবিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সৌদি আরব বিএনপির উপদেষ্টা আব্দুর রহমান। : সভাপতির  বক্তব্যে আহমদ আলী মুকিব বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্ব দল আজ ইস্পাত কঠিন ঐক্যবদ্ধ। তারেক রহমানের নেতৃত্বে আন্দোলনের মাধ্যমে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে বাংলাদেশের গণতন্ত্র ফিরিয়ে এনে শেখ হাসিনার দুঃশাসন থেকে দেশের মানুষকে মুক্ত করব ইনশাল্লাহ। মুকিব আরো বলেন, বর্তমানে ক্ষমতাসীন অত্যাচারী ফ্যাসিবাদী সরকার বারবার দেশের জনগণের ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত এবং দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রীকে রাজনীতি এবং নির্বাচন থেকে সরিয়ে রেখে একদলীয় স্বৈরশাসনকে চিরস্থায়ী করার লক্ষ্যে অত্যন্ত নির্লজ্জভাবে সাজানো মামলায় সাজানো আদালতের মাধ্যমে এ রায় দেয়া হয়েছে। দেশের সাধারণ জনগণ এই অবৈধ ও পূর্ব পরিকল্পিত রায়কে ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে। : খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা রায়ের প্রতিবাদে বেলজিয়াম বিএনপির বিক্ষোভ : বিএনপি চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট  মামলার মিথ্যা  রায়ের প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক  বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা করেছে বেলজিয়াম শাখা বিএনপি। বৃহস্পতিবার ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সদর দফতর ব্রাসেলসে। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বেলজিয়াম শাখার সভাপতি আহমেদ সাজার সভাপতিত্ব ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বাবুর পরিচালনায় বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। : সভার শুরুতে নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্বে দল আজ ইস্পাত কঠিন ঐক্যবদ্ধ। তার নেতৃত্বে আন্দোলনের মাধ্যমে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে বাংলাদেশের গণতন্ত্র ফিরিয়ে এনে শেখ হাসিনার দুঃশাসন থেকে দেশের মানুষকে মুক্ত করব ইনশাল্লাহ। : সভাপতির বক্তব্যে  বেলজিয়াম বিএনপির সভাপতি আহমদ সাজা বলেন, বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দেয়া রায়ের তীব্র সমালোচনা করে বক্তারা বলেন, বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তাকে ভয় পেয়েই অবৈধ সরকার মিথ্যা মামলা দিয়ে, সাজানো রায় দিয়ে রাজনীতি থেকে দূরে রাখতে চায়। খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে এই মামলা ও রায় সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং যার কোনো ভিত্তি নেই। : এসময় উপস্থিত ছিলেন বেলজিয়াম বিএনপির সহসভাপতি  হাসান রাকিব প্রধান, সহসভাপতি আবু বক্কর, কবির আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আলী নুর শামীম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ, আশিক আহমদ বাপ্পী, তাহশিক হক ওসমানসহ যুগ্ম সম্পাদক জসিম মোল্লা, হাসান লিটন, আবু সাঈদ, অর্থ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, দফতর সম্পাদক ফখরুল ইসলাম পাপন, সহ দফতর সম্পাদক মাহমুদুল হাসান মমো, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা মাকসুদা সালাম মলি, সহসমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী, যুবদলের আহ্বায়ক কাজী রহিমুল বাবু, যুগ্ম আহ্বায়ক সাইফ উদ্দিন ইরানী, সাখাওয়াত হোসেন, রাফি ইসমাইল হোসেন, ফরহাদ মাছুম,  যুবদল নেতা হারুন শহিদুল, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা কাজী এমদাদুল হক দিপু প্রমুখ। : জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনে প্রতিবাদ সভা : জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত বক্তারা তিন তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এবং বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন এর প্রেসিডেন্ট তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রায়ে তীব্র অসন্তোষ, হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। দেশের আপামর জনসাধারণের মতো জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনও এই রায়কে সম্পূর্ণরূপে প্রত্যাখ্যান করেছে। বক্তারা বলেন, দেশ পুনরায় একদলীয় বাকশালীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েমের লক্ষ্যে আগামীর সাধারণ নির্বাচনে বেগম খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানকে বাদ দেয়ার যে ষড়যন্ত্র সরকার করেছিল এ রায় তারই প্রতিফলন। বক্তারা বলেন, প্রায় ২৭ বছর পূর্বের সাধারণ ঘটনাকে পুঁজি করে সরকার মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দায়ের মাধ্যমে এ ষড়যন্ত্রে জাল বুনন করেছে। সরকারের মন্ত্রী এবং বিভিন্ন পর্যায়ের দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের রায় পূর্ববর্তী বক্তব্যের কারণে এই সাজানো ও মিথ্যা মামলার সুষ্ঠু বিচার নিয়ে দেশের সাধারণ মানুষ আগে থেকেই আশঙ্কা প্রকাশ করছিল। রায় প্রকাশের পর তাদের এই আশঙ্কা সত্য বলে প্রমাণিত হলো। সভায় বক্তারা বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং তারেক রহমানের সাজার রায় বাতিলের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করেছেন। পাশাপাশি বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং  তারেক রহমানের সাজার রায় বাতিলের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সরকারের কাছে আহবান জানাচ্ছেন। : সিলেট : সিলেট অফিস জানায়, বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সিলেট নগরীতে কড়া নিরাপত্তায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিএনপি। শুক্রবার দুপুরে নগরীর দরগাহ গেট থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে চৌহাট্টা পয়েন্টে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে কয়েকশ নেতাকর্মী অংশ নেন। : জুমার নামাজ শেষ হওয়ার পর দলীয় নেতাকর্মীরা দরগাহর প্রধান ফটকের সড়ক থেকে মিছিল শুরু করেন। এসময় পুলিশ থাকলেও তারা কোনো বাধা দেয়নি। কয়েকশ নেতাকর্মীর মিছিলটি চৌহাট্টা পয়েন্টে গিয়ে শেষ হয়। এসময় বিভিন্ন স্লোগান দেন তারা। : মিছিলে অন্যদের মধ্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ ক্ষুদ্র ঋণ বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক এমপি আলহাজ্ব শফি আহমদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট জেলা বিএনপি সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, মহানগর সভাপতি নাসিম হোসাইন ও সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম এবং জেলা সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, কয়েস লোদি প্রমুখ অংশ নেন। : মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন বিএনপির সব কেন্দ্রীয় কর্মসূচিতে সিলেট বিএনপি মাঠে থাকবে জানিয়ে আগামী দিনের আন্দোলনে বিএনপি নেতাকর্মীদের অংশ নেয়ার আহবান জানান। নেতৃবৃন্দ বলেন,  যে মামলায় ৫ বছর তো দূরের কথা এক সেকেন্ডের সাজা প্রদানের কথা ছিলনা সেই মামলায় তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ৫ বছর, দেশনায়ক তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ১০ বছরের সাজা এবং বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে প্রেরণ আওয়ামী রাজনীতির প্রতিহিংসার নগ্ন বহিঃপ্রকাশ। সরকারের আজ্ঞাবহ ব্যক্তিদের আদালতে বসিয়ে বিরোধী রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে দমনের নোংরা রাজনীতি আওয়ামী লীগের চিরাচরিত অভ্যাস। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়াকে মাইনাস করে এদেশে কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবেনা। আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের দুশমন, বাকশালের জন্মদাতা। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রবর্তন করে শেখ হাসিনার আওয়ামীলীগকে এদেশে রাজনীতির সুযোগ দিয়েছিলেন। শেখ হাসিনা ও আওয়ামীলীগ ইতিহাসের সাথে গাদ্দারী করেছে। ইতিহাস তাদের কোনদিন ক্ষমা করবে না। বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রাখার সাধ্য বাকশালীদের নেই। গণবিস্ফোরণের মাধ্যমেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে। : অপরদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে সাজা প্রদানের প্রতিবাদে শুক্রবার জুমার নামাজের পর নগরীতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেছে সিলেট জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবকদল ও ছাত্রদল। নগরীর দরগা গেট এলাকা থেকে মিছিলটি শুরু করে চৌহাট্টা পয়েন্ট ঘুরে দরগা গেট পয়েন্টে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ সমাবেশ করে।  : সিলেট মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামীম‘র সভাপতিত্বে ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল ওয়াহিদ সোহেল ও জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল কাইয়ুমের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মিছিল ও সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক সহ সভাপতি আব্দুল আহাদ খান জামাল, জেলা বিএনপির যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক আরিফ ইকবাল নেহাল (চেয়ারম্যান), জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক জাকির হোসেন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক কামাল হাসান জুয়েল, খালেদ আহমদ চেয়ারম্যান, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক মল্লিক আহমদ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকদল নেতা দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আলতাফ হোসেন টিটু, মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ সাধারণ সম্পাদক আফজল হোসেন চৌধুরী, কামাল হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা, আব্দুল্লাহ আল মামুন, রাসেল আহমদ খান, মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ফাহিম রহমান মৌসুম, ছাত্রদল নেতা আশরাফ উদ্দিন রাজীব, মাকসুদ আলম, সাইফুল আলম কোরেশী, স্বেচ্ছাসেবকদল নেতা আজিজ খান সজীব, ছাত্রদল নেতা ছাইদুর ইসলাম রনি, স্বেচ্ছাসেবকদল নেতা বাইন উদ্দিন, সৈয়দ কামরুল প্রমুখ। সভাপতির বক্তব্যে সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবকদলের আহবায়ক ও কাউন্সিলার ফরহাদ চৌধুরী শামীম বলেন, মুক্ত খালেদা জিয়ার চেয়ে বন্দি খালেদা জিয়া আরো বেশি জনপ্রিয়, সুতরাং রাজপথের আন্দোলনের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনবোই। তিনি বলেন বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র এদেশের জনগণ সফল হতে দেবেনা। : হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, হবিগঞ্জে পুলিশের বাধার মুখেও বিএনপির বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৫টায় জেলা বিএনপির উদ্যোগে মিছিলটি শায়েস্তানগরস্থ জেলা কার্যালয় থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করলে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মিছিলে বাধা দেয়। এ সময় বাধা উপেক্ষা করে মিছিল বের করে নেতাকর্মীরা। তবে বিক্ষিপ্ত ভাবেও শহরের বিভিন্নস্থানে মিছিল করেছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। এদিকে বিএনপির প্রায় ৫শ’ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পৃথক ৫টি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জি কে গউছের নেতৃত্বে বিকেলে শায়েস্তানগরে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপি নেতা এডভোকেট নুরুল ইসলাম, মিজানুর রহমান চৌধুরী, হাজী এনামুল হক, পৌর বিএনপি সভাপতি কাউন্সিলর মোঃ আবুল হাশিম, সম্পাদক নুরল ইসলাম নানু, জেলা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এস এম বজলুর রহমান, জেলা যুবদল সভাপতি আজিজুর রহমান কাজল, সম্পাদক মিয়া মোঃ ইলিয়াছ, সাংগঠনিক সম্পাদক জালাল আহম্মেদ, কৃষকদল নেতা মাহবুবুর রহমান আওয়াল, পৌর যুবদল আহ্বায়ক সফিকুর রহমান সেতু, যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ মোঃ মামুন, জেলা ছাত্রদল সভাপতি এমদাদুল হক ইমরান, সিনিয়র সহ সভাপতি জিল্লুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক রুবেল আহম্মেদ চৌধুরী, মহিলা দল নেত্রী এডভোকেট ফাতেমা ইয়াছমিন, সম্পাদক লাভলী সুলতানা, সুরাইয়া আখতার রাখি, মৎস্যজীবী দল নেতা অ্যাডভোকেট মুদ্দত আহম্মেদ, প্রমুখ। অপরদিকে জেল বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ডা. আহমুদুর রহমান আবদালের নেতৃত্বে মুসলিম কোয়ার্টার এবং সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট এনামুল হক সেলিমের নেতৃত্বে পোদ্দারবাড়ি এলাকায় পৃথক মিছিল বের করা হয়। এদিকে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে গতকাল শুক্রবার জেলা শহরে ৩ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। : কুমিল্লা : কুমিল্লা প্রতিনিধি জানান, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের সাজা দিয়ে জেলে নেয়ার প্রতিবাদে গতকাল শুক্রবার বিকেলে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ও মহানগর বিএনপির উদ্যোগে এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি  সদর হাসপাতাল রোড থেকে শুরু হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এ সময় কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য সাবেরা আলাউদ্দিন, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল কাইয়ুম, জেলা বিএনপির সহ প্রচার সম্পাদক হাজী সফিউল আলম রায়হান, কুমিল্লা মহানগর যুবদলের সভাপতি উৎবাতুল বারী আবুসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। মিছিল পূর্ব বক্তৃতায় নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার দাবি জানিয়ে বলেন, অন্যথায় যে কোন পরিস্থিতির জন্য সরকারকে প্রস্তুত থাকতে হবে। : নওগাঁ : নওগাঁ প্রতিনিধি জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে নওগাঁয় শুক্রবার দুপুরে পুরাতন কালেকটরেট চত্বরের সামনে থেকে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল বের করলে পুলিশ বাধা দেয়। পরে পুলিশ বেষ্টনীর মধ্যে শহরের কেডির মোড় বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশ বেষ্টনির মধ্যে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে। সমাবেশে  বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা লেঃ কর্নেল অবঃ আব্দুল লতিফ খান, জেলা বিএনপির সভাপতি ও পৌর মেয়র নাজমুল হক সনি, সাধারন সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু, যুগ্ম সম্পাদক ও ৯০ এর স্বেরাচার বিরোধী ছাত্র আন্দোলনের আহবায়ক আমিনুল হক বেলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মামুনুর রহমান রিপন ও শফিউল আজম ওরফে ভিপি রানা, পৌর বিএনপির আহবায়ক নাছির উদ্দীন আহমেদ, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা বিএনপি নেতা অ্যাডঃ রািফকুল আলমসহ যুবদল, ছাত্রদল ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। বক্তারা অবিলম্বে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মিথ্যা মামলার রায়ের তীব্র নিন্দা ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান। : নেত্রকোনা : নেত্রকোনা প্রতিনিধি জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা সাজা দেয়ার প্রতিবাদে জেলা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা গতকাল শুক্রবার জেলা শহরের কুরপাড়ে ঝটিকা মিছিল করেছে। বিকাল ৪টার দিকে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা কুরপাড় পেট্রল পাম্পের সামনে থেকে মিছিলটি বের করে মাস্টারবাড়ীর সামনে পৌঁছলে পুলিশ ধাওয়া দিয়ে মিছিলটিকে চত্রভঙ্গ করে দেয়। : নোয়াখালী : মাইজদী কোট (নোয়াখালী)  প্রতিনিধি জানান, নোয়াখালীতে পুলিশি বাধার মুখে বিক্ষোভ মিছিল করতে পারেনি বিএনপি। গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজের পর সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ৫ বছরের কারাদণ্ডের প্রতিবাদে এ বিক্ষোভ মিছিল করার চেষ্টা করে জেলা বিএনপি। : প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার জুমার নামাজের পর জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম হায়দার বিএসসি ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুর রহমানের নেতৃত্বে জেলা জামে মসজিদের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল করার চেষ্টা করে বিএনপি ও অংগসংগঠন। কিন্তু এতে পুলিশ বাধা দেয়ায় মিছিল করতে পারেনি নেতাকর্মীরা। এতে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ অস্ত্র-শস্ত্র তাক করলে নেতাকর্মীরা পিছু হটে যায়। গতকাল সকাল থেকে জেলার বিভিন্ন স্থানে পুলিশ সতর্কতা ছিল। : বিএনপির জেলা সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আবদুর রহমান বলেন, মিথ্যা একটা মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তাদের নেত্রীকে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। যার প্রতিবাদে বিএনপি সারাদেশে শুক্রবার বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেয়। সে হিসেবে জেলার নেতৃবৃন্দ শান্তিপূর্ণভাবে একটি মিছিল করার চেষ্টা করে। কিন্তু পুলিশ তাতেও বাধা দেয়। : এ বিষয়ে সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, পুলিশ কোনো প্রকার বাধা দেয়নি। তাছাড়া বিএনপি কোনো মিছিল করারও চেষ্টা করেনি। এক প্রশ্নে বলেন, আইন-শৃঙ্খলার যাতে অবনতি না হয়, সেজন্য শহরে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। : টঙ্গী : টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় গাজীপুর মহানগরের চান্দনা চৌরাস্তায় সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জিএস সুরুজ আহম্মেদ এর নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন সদর থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বশির আহম্মেদ বাচ্চু, বাসন বিএনপির সভাপতি হাজী হযরত আলী, ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় যুগ্মসম্পাদক মনিরুল ইসলাম মনির, জেলা ছাত্রদলের সাবেক প্রচার সম্পাদক আতাউর রহমান, ভাওয়াল কলেজ ছাত্রদলের সহসভাপতি আমজাদ হোসেন সরকার, যুগ্ম সম্পাদক মাসুদুল কবির মোনায়েম, দপ্তর সম্পাদক শাহাদাত হোসেন, বিএনপি নেতা হাজী মোশারফ হোসেন, আব্দুস ছোবাহান, ছাত্রদল নেতা নাহিদ চৌধুরী বাবু, মুনসুর আহম্মেদ, খোরশেদ আলম, নাদিম দেওয়ান প্রমুখ। অপরদিকে কাপাসিয়া উপজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহসভাপতি বেলায়েত হোসেন মোড়লের নেতৃত্বে বাদ জুমা গাজীপুর চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় অপর একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন, ছাত্রদল নেতা বেলাল সরকার, ইমরান চৌধুরী হিমু, মাহমুদুল হাসান রনি, রাকিব সরকার, সাদ্দাম হোসেন, মোরাদ মিয়া, ফাহাদ হোসেন, জুয়েল সরকার, ইলিয়াস আকন্দ, সোহাগ সরকার





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, মন্ত্রীদের বক্তব্যের সঙ্গে রায়ের হুবহু মিল রয়েছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
7056 জন