খালেদা জিয়াকে সাজা সরকারের পূর্ব পরিকল্পিত নীলনকশা : অলি
Published : Sunday, 11 February, 2018 at 12:00 AM, Update: 10.02.2018 11:16:25 PM
খালেদা জিয়াকে সাজা সরকারের পূর্ব পরিকল্পিত নীলনকশা : অলিদিনকাল রিপোর্ট : পুরাতন ঢাকার ‘পরিত্যক্ত’ কারাগারে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দি রাখার পেছনে সরকারের সাথে এরশাদের যোগসাজশ রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন এলডিপি সভাপতি কর্নেল (অব) অলি আহমেদ বীরবিক্রম। তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি করায় রাজনৈতিক সঙ্কট আরো বাড়বে। এ সময় তিনি খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করে বিএনপির কর্মসূচির সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেন। গতকাল শনিবার এফডিসির পূর্ব পাশে ২৯/বি, মর্নিং পোস্ট, পূর্বপান্থপথ এলডিপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে “বর্তমান প্রেক্ষাপট ও ২০ দলীয় জোট নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার রায় নিয়ে” এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। তেজগাঁওয়ে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। : কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাজা পরিকল্পিত। গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী রায়ের আগেই তার জন্য কারাগারে জায়গা ধোয়া মোছার কাজ হয়েছে। আর ৬৩২ পৃষ্ঠার রায় মাত্র ১০ দিনে কী করে লেখা সম্ভব? যারা লুটপাট করেছে, তাদের খবর নেই, অথচ নিরপরাধ সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে কারাগারে নেয়া হয়েছে। : তিনি অভিযোগ করে বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়ার বিষয়টি সরকারের পূর্ব পরিকল্পিত। তাকে যে কারাগারে রাখা হয়েছে, সেটি অপরিচ্ছন্ন। বিএনপি নেত্রীকে কারাগারে পাঠানোর সব বন্দোবস্ত আগেই ঠিক করে রাখা হয়েছিল। : অলি আহমেদ বলেন, আমরা শুনেছি তাকে (খালেদা জিয়া) কয়েদির কাপড় পরানো হয়েছে এবং পুরনো একটি জেলে রাখা হয়েছে। এটা কী কারণে করা হলো? আমি তো মনে করি এরশাদ (সাবেক রাষ্ট্রপতি) মুক্ত আছেন। তাকে নাজিমউদ্দিন রোডের কারাগারে রাখা হয়েছিলো। এটা হয়ত সরকার, আওয়ামী লীগ এবং এরশাদ ঐক্যবদ্ধভাবে এই কাজটা করেছে। একটা  পরিত্যক্ত জেলে তাকে (খালেদা জিয়া) নেবার প্রয়োজন ছিলো না। : তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, সরকার তো দুইটা নতুন জেল নির্মাণ করেছে। কেরানিগঞ্জে হয়েছে, কাশিমপুরে হয়েছে। ওনাকে সসম্মানে সেখানে রাখতে পারতো। বেগম খালেদা জিয়াকে নিজ বাসায় পাহারা দিয়ে রাখতে পারতো। এখানে তো জেল কোডের অবমাননা হতো না। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও বেগম খালেদা জিয়াকেও ২০০৭ সালে সেনা সমর্থিত সরকার সসম্মানে সংসদ ভবনের দুইটা বাসায় রাখা হয়েছিলো। এই রকম একটা জায়গায় বেগম খালেদা জিয়াকে কেন রাখা হলো না, বর্তমান সরকারকে তার জবাব একদিন দিতে হবে। : সাবেক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে, সাবেক সেনা প্রধানের স্ত্রী হিসেবে, সাবেক রাষ্ট্রপতির স্ত্রী হিসেবে, মুক্তিযুদ্ধের ঘোষকের স্ত্রী হিসেবে বেগম খালেদা জিয়া যদি ডিভিশন না পান তাহলে বাংলাদেশে আর কে ডিভিশন পাওয়ার যোগ্য বলে প্রশ্ন করেন অলি। : খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির দেয়া সকল কর্মসূচির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন অলি আহমেদ। : তিনি বলেন, নির্বাচন থেকে দূরে রাখার জন্য, বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্য বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে সাজা দেয়া হয়েছে। এটা সরকারের পূর্ব পরিকল্পনার অংশ বলে আমরা মনে করি।  আমরা অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি জানাচ্ছি। এই দাবিতে বিএনপি যেসব কর্মসূচি দিচ্ছে তার প্রতি আমরা পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছি। : সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন এলডিপির মহাসচিব রেদোয়ান আহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল করীম আব্বাসী, আবদুল গনি, কামালউদ্দিন মোস্তফা প্রমুখ। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

ভারতীয় গণমাধ্যম বলেছে, এই মুহূর্তে নির্বাচন হলে আ’লীগ হেরে যাবে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
4979 জন