ড্যাবের আলোচনা সভায় বক্তারা
বিএনপি সহিংস আন্দোলন না করায় সরকার হতাশ
Published : Monday, 12 February, 2018 at 12:00 AM, Update: 11.02.2018 11:22:20 PM
বিএনপি সহিংস আন্দোলন না করায় সরকার হতাশদিনকাল রিপোর্ট : বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার রায় ও সাজাকে কেন্দ্র করে বিএনপি সহিংস আন্দোলন না করায় সরকারি দল হতাশ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, বিএনপির ওপর যত আঘাত করা হচ্ছে তাতে তত বেশি আমাদের গ্রহণযোগ্যতা জনগণের কাছে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়া বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে দেয়ায় তার জনপ্রিয়তা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। গতকাল রবিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক চিকিৎসক সমাবেশে তিনি এই মন্তব্য করেন। বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে এই সমাবেশের আয়োজন করে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-ড্যাব। : জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট মামলার সাথে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কোনো সম্পৃক্ততা ছিলো না বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, দেশনেত্রীকে অন্যায়ভাবে সাজা দেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগের নেতারা বলছেন তাকে দুর্নীতির দায়ে সাজা দেয়া হয়েছে। আমরা তো রায় দেখলাম দুর্নীতি দমনের কোনো আইনে তাকে সাজা দেয়া হয়নি। তাকে সাজা দেয়া হয় প্যানাল কোডের ৪০৯ ও ১০৯ ধারায়। দেশের প্রধানমন্ত্রী ৫ মাস আগ থেকে বলছেন সাজা হবে, মন্ত্রীরা বলছেন, জাতীয় পার্টির নেতা বলে আসছেন এই সাজার কথা। : নজরুল ইসলাম খান বলেন, আওয়ামী লীগ চেয়েছিল বেগম খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপির নেতাকর্মীরা গাড়ি ভাঙচুর করুক। আর গাড়ি ভাঙচুর করলেই এই সুযোগে আওয়ামী লীগ গাড়িতে আগুন দিয়ে মানুষ মারতো আর দোষ চাপাতো বিএনপির ওপর। যেহেতু রায় ও সাজাকে কেন্দ্র করে বিএনপি কোনও সহিংস আন্দোলনে যায়নি, তাই সরকারি দল হতাশ। আমরা শান্তিপূর্র্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাব। আমাদের দলের চেয়ারপারসন (কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়া) এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের (তারেক রহমান) সেটাই নির্দেশ। বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সোমবার থেকে বুধবার পর্যন্ত ঢাকাসহ সারাদেশে তিনদিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। এরমধ্যে আছে, সোমবার মানববন্ধন, মঙ্গলবার অবস্থান কর্মসূচি এবং বুধবার অনশন। : তিনি বলেন, আমরা সহিংস আন্দোলন করছি না বলে সরকারের মন্ত্রীরা বলছেন রায় ও সাজা নিয়ে তেমন কোনো প্রতিক্রিয়া দেখছেন না। আমি তাদের কাছে প্রশ্ন রাখতে চাই ’৭৫-এ বঙ্গবন্ধুর নৃশংস হত্যার পর আপনাদের প্রতিক্রিয়া কোথায় ছিল। তখন সংসদে আপনাদের ৩০০ জন এমপি ছিল, আপনারা ছাড়া দেশে কোনো রাজনৈতিক দলও ছিল না, তাহলে কেন দেশের কোনো প্রত্যন্ত অঞ্চলেও প্রতিবাদ করতে পারেননি। : বিএনপি শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে প্রতিবাদ করবে জানিয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, আমরা কোনো ধরনের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ উৎসাহিত করি না।  বিএনপি একটি গণতান্ত্রিক দল। গণতান্ত্রিকভাবেই আন্দোলন করবে। রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে এ পর্যন্ত ৪ হাজারের বেশি নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযোগ করে তিনি অবিলম্বে তাদের মুক্তি দাবি করেন। : জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বেগম খালেদা জিয়া সুবিচার পাননি মন্তব্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন, সুবিচার হবে কীভাবে? এর আগে তারেক রহমানকে একটি মামলায় একজন বিচারপতি খালাস দেয়ায় তাকে দেশ ছাড়তে হয়েছিল। প্রধান বিচারপতিকেও রোগী বানিয়ে পদত্যাগ করতে বাধ্য করা হয়েছে। সেই বিচারক দেশে থাকতে পারেননি। তাহলে বিচারপতিরা কীভাবে সরকারের ইচ্ছার বিরুদ্ধে রায় দেবে। : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুই কোটি টাকা আত্মসাতের যে অভিযোগ আনা হয়েছে সে বিষয়ে বিষ্ময় প্রকাশ করে বিএনপি স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, কেউ বিশ্বাস করবে তিনি (খালেদা জিয়া) ২ কোটি টাকা তছরুপ করেছেন। তিনি বললে ২ কোটি টাকা জোগাড় করতে কয়দিন লাগবে। তাছাড়া টকা তছরুপ তো হয়নি। বরং তা আরো তিনগুণ বেড়েছে। : তিনি বলেন, ট্রাস্টের টাকার অনিয়ম হলে তা দেখার জন্য পৃথক বিভাগ আছে। কিন্তু এই বিষয়টি দুর্নীতি দমন কমিশনের তো দেখার কিছু নেই। তাছাড়া এই মামলায় বেগম খালেদা জিয়ার কোনো সম্পৃক্ততা নেই। কোনো কর্মকান্ডে তিনি সংশ্লিষ্ট ছিলেন না। : বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান দলের দায়িত্ব¡শীল নেতাদের সঙ্গে কথা বলে কর্মকান্ড পরিচালনা করছেন বলে জানান দলটির এই নীতি নির্ধারক। : আয়োজক সংগঠনের সহ-সভাপতি ডা. আবদুল কুদ্দুসের সভাপতিত্বে এবং সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রফিকুল ইসলাম বাচ্চুর সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ডা. সিরাজ উদ্দিন আহমেদ, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ফাওয়াজ হোসেন শুভ, সহ-তথ্য বিষয়ক সম্পাদক কাদের গনি চৌধুরী প্রমুখ। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেছেন, অদৃশ্য শক্তির কারণে সাগর-রুনি হত্যার বিচারে কালক্ষেপণ করা হচ্ছে। আপনি কী একমত?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
1411 জন