আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে নেত্রীকে মুক্ত করব : রিজভী
খালেদা জিয়াকে কারাগারে রাখতেই শ্যোন অ্যারেস্ট : আইনজীবীগণ
Published : Tuesday, 13 February, 2018 at 12:00 AM, Update: 12.02.2018 11:08:44 PM
খালেদা জিয়াকে কারাগারে রাখতেই শ্যোন অ্যারেস্ট : আইনজীবীগণদিনকাল রিপোর্ট : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, দেশে প্রতিহিংসা ও মিথ্যাচারের রাজনীতি চলছে। বেগম খালেদা জিয়াকে সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলায় দন্ডিত করে কারাগারে নেয়া হয়েছে। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। : গতকাল সোমবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী ভবনের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে তিনি এ কথা বলেন। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বেআইনি ও অন্যায়ভাবে সাজা দেয়ার প্রতিবাদে সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম এ মানববন্ধনের আয়োজন করে। : মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে অংশ নেন সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি জয়নুল আবেদীন, নিতায় রায় চৌধুরী, ফজলুর রহমান, সানাউল্লাহ মিয়া, সুপ্রিম কোর্ট বারের সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকন, সাবেক সম্পাদক বদরুদ্দোজা বাদল, কায়সার কামাল, তৈমূর আলম খন্দকার, গোলাম মো. চৌধুরী আলাল, আসিফা আশরাফী পাপিয়া, রুহুল কুদ্দুস কাজল, গাজী কামরুল ইসলাম সজল, সিমকী ইমাম খান প্রমুখ। মানববন্ধন শেষে সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মওদুদ আহমদ বলেন, দেশে এখন একমাত্র চ্যালেঞ্জ হচ্ছে গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনা। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে নেয়া হয়েছে। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। দেশে গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে আগামী দিনে বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আন্দোলনে সফল হব ইনশাল্লাহ। : অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় পাঁচ বছরের কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। এতে তার জনপ্রিয়তা তিন গুণ বেড়েছে। এই কারাদন্ড সরকার পতনের প্রথম ধাক্কা। এই সাজার কারণে সরকারের পতন ত্বরান্বিত হবে। তিনি বলেন, তাকে দীর্ঘদিন যাতে কারাগারে রাখা যায় সেই চেষ্টায় লিপ্ত সরকার। : তিনি বলেন, কুমিল্লার একটি মামলায় বেগম জিয়ার সংশ্লিষ্টতা নেই তাতেও তাকে শ্যোন এ্যারেস্ট দেখানো হচ্ছে। এর কারণ বেগম খালেদা জিয়া ও বিএনপিকে ভয় পায় সরকার। সরকারকে বলতে চাই যতই শ্যোন এ্যারেস্ট দেখান জনগণ সুপ্রিম কোর্টের ওপর এখনও আস্থাশীল। বেগম জিয়াকে আমরা কারাগার থেকে মুক্ত করবই। বেগম জিয়াকে দীর্ঘদিন কারাগারে রাখতে পারবেন না। নিতায় রায় চৌধুরী বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে অবৈধভাবে সাজা দেয়া হয়েছে। সারা দেশ আজ আগুনের মতো ফুটছে। দেশে ষড়যন্ত্র চলছে। আমরা এই ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করব, সরকারের পতন ঘটিয়ে দেশনেত্রীকে কারামুক্ত করব। দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনব। : মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ‘শেখ হাসিনা আপনি বেগম খালেদা জিয়ার ওপর অত্যাচার করছেন। সারাজীবন অত্যাচার করার চেষ্টা করেছেন, পারেননি। এখন জেলে দিয়ে তাকে ঠিকমতো খাবার ও চিকিৎসা দিচ্ছেন না।’ তিনি আরো বলেন, দেশের জনগণ ঐক্যবদ্ধ বেগম জিয়াকে জেল থেকে মুক্ত করবে। আবার ক্ষমতায় ফিরিয়ে আনবে। অবিলম্বে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করুন। নতুবা এর পরিণাম ভয়াবহ হবে। : খালেদা জিয়ার মুক্তি প্রলম্বিত করতে শ্যোন এরেস্ট : রিজভী : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন প্রাপ্তি প্রলম্বিত করতে সরকার বিভিন্ন মামলায় শ্যোন এরেস্ট  দেখাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। গতকাল সোমবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। : রিজভী বলেন, সরকার বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়েই ক্ষান্ত হয়নি। এখন তারা আরেকটা ষড়যন্ত্রের জ্বাল বুনছে। বিভিন্ন পুরনো মিথ্যা-বানোয়াট মামলায় নেত্রীর বিরুদ্ধে শ্যোন এরেস্ট দেখানো হচ্ছে। উদ্দেশ্য একটাই নেত্রীর জামিনপ্রাপ্তিকে প্রলম্বিত করার জন্য, দীর্ঘায়িত করার জন্য সরকারের এসব হচ্ছে ষড়যন্ত্রমূলক কর্মকান্ড। রাজনৈতিক হীন উদ্দেশ্যে ওইসব মামলায় দেশনেত্রীকে হয়রানি ও হেনস্তা করতে ওইসব মিথ্যা মামলা করা হয়েছিলো। আমাদের আইনজীবীরা আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে আমাদের নেত্রীকে মুক্ত করে আনবেন ইনশাল্লাহ। : রিজভী বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাজা এবং কারাগারে বন্দি রাখা সরকারের নির্দেশেই সম্পন্ন করা হয়েছে বলেই জনগণ বিশ্বাস করে। রাজনীতির মাঠ সন্ত্রাসী শক্তিতে দখলে নেয়ার জন্য সরকার যেভাবে মরিয়া হয়ে উঠেছে বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দি করা তারই বহিঃপ্রকাশ। বন্দি করার পরও সরকার একের পর এক পরীক্ষা করে দেখছে কতভাবে তাঁকে নির্যাতন করা যায়। এই কারণেই ভোটারবিহীন সরকার কূটচাল এবং নিষ্ঠুর প্রতিশোধের ধারা অব্যাহত রেখেছে বিএনপিসহ গণতান্ত্রিক শক্তির ওপর। সারাদেশের মানুষ ক্ষোভে-দুঃখে মুষড়ে পড়েছে আওয়ামী লীগের নিষ্ঠুর প্রতিশোধের বিচারের বীভৎসতা দেখে। বিচার ব্যবস্থা ও আইনের শাসন প্রশ্নে সৃষ্ট বৃহত্তর সংকট ঘনীভূত করে প্রশাসনিক ও বিচারিক প্রতিষ্ঠানকে করায়ত্ত করা হয়েছে শুধুমাত্র বিরোধী প্রতিপক্ষকে সমূলে নির্মূল করার এক গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে। : তিনি বলেন,  প্রবাদ আছে-চোরে না শুনে ধর্মের কাহিনী। সন্ত্রাস ও গুন্ডামী যাদের রাজনীতির আদর্শ তাদের কাছে নির্ভেজাল গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক শর্তগুলো অজানা থাকে। চিরায়ত গণতন্ত্রের উপাদানগুলো হচ্ছে ফ্রিডম অব স্পীচ, ফ্রিডম অব এ্যাসেম্বলী, এ্যাকসেস টু ইনফরমেশন। কিন্তু আওয়ামী লীগের কাছে গণতন্ত্রের এই শর্তগুলো বিষাক্ত কাঁটার ন্যায়। দখল ও লুটপাটের আনন্দে তাদের ক্ষমতা ধরে রাখতে হবে আর সেজন্য সমালোচনা ও সমাবেশের স্বাধীনতার কথা শুনলে তারা আঁতকে ওঠে। এই কারণে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদের সমাবেশকে বানচাল করতে এরা কখনোই দ্বিধা করে না। নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযান এবং ছাত্রলীগ-যুবলীগের সশস্ত্র মহড়া ও হামলায় বিএনপিকে রাস্তায় নামতে অবিরাম পৈশাচিক বাধা দিয়ে যাচ্ছে। গতকাল ঢাকাসহ দেশব্যাপী বিএনপির উদ্যোগে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি ছিল। দেশব্যাপী চলেছে গ্রেফতার ও হামলা, কর্মসূচিতে হামলা, ব্যানার খুলে ফেলা, নেতাকর্মীদের আহত করা।   : গ্রেফতারের চিত্র তুলে ধরে রিজভী বলেন,  সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন শেষে ফেরার সময় মৎস্য ভবনের সামনে থেকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষকদলের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদু, ফেনী জেলা যুবদল নেতা জাকির হোসেনসহ ১৮ জনের অধিক নেতাকর্মীকে পুলিশ গ্রেফতার করে। ঢাকা মহানগর উত্তর :  রামপুরা থানা যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুহুল অমিন গ্রেফতার। ছাত্রদল : কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি আহমেদ সাইমুন ও ইসতিয়াক নাসির, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রনেতা ওবায়দুল্লাহ নাঈম, মীর মাহমুদ উল্লাহ আকাশ, রায়হান খান, ঢাকা মহানগর (উঃ) ছাত্রদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক ইমরান হাসান আপেলসহ ১৩ জন গ্রেফতার।  কুড়িগ্রাম জেলা :  সদর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান চেয়ারম্যান, ছাত্রদল সভাপতি আবদুর রহিম রাসেল, সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস খান রুবেল, পৌর যুবদলের সাঃ সম্পাদক নাহিদ হাসানসহ ৬ জনের অধিক নেতাকর্মী গ্রেফতার। লক্ষীপুর : প্রেসক্লাবের সামনে থেকে সদর উপজেলা যুবদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক শিপন পাটোয়ারীসহ ৫ জনের অধিক গ্রেফতার। লাঠিচার্জে ৮/৯ জন আহত। বান্দরবান জেলা : পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ শামিম, যুবদল নেতা সালেক, বাদশা, ছাত্রদল নেতা রাসেল, ফরহাদসহ ৯ জনের অধিক গ্রেফতার। : মুন্সিগঞ্জ জেলা :  শ্রীনগর উপজেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ ইদ্রিস আলীসহ অন্তত ৪ জনকে মানববন্ধন থেকে গ্রেফতার। ভোলা : জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি যুবদল নেতা আব্দুল কাদের সেলিম, যুবদল নেতা ফারুক শিকদারসহ অন্তত ১১ জন গ্রেফতার। ফেনী : ছাগলনাইয়া উপজেলা ছাত্রদল নেতা এস এম শাহাদত উল্লাহ। মৌলভীবাজার : কুলাউড়ায় মানববন্ধনে পুলিশ বাধা দিয়ে ১৪-১৫ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করে। এরপর দুপুর আড়াই টা থেকে এ্যাডঃ আবেদ রাজা কুড়াউড়া স্বাধীনতা স¥ৃতিসৌধ চত্বরে আমরণ অনশন করছেন।  ঠাকুরগাঁও : মানববন্ধনে পুলিশ বাধা দিয়ে ব্যানার ছিনিয়ে নিয়ে লাঠিপেটা করে। দিনাজপুর :  মানববন্ধনে পুলিশের বাধা। নেত্রকোনা : মানববন্ধনে পুলিশের বাধা। সৈয়দপুর-ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, ছাত্রদল নেতা সাজেদুর রহমান দিনার ও স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা মোশাররফ হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এছাড়া ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক এলডিপি’র চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলা নেতা জসিম উদ্দিন, ওমর খান, সবুজ; কুমিল্লা উত্তর জেলার চান্দিনা উপজেলা এলডিপি নেতা শামসুল হক এবং ঢাকায় এলডিপি’র ছাত্র সংগঠন গণতান্ত্রিক ছাত্রদলের দুইজন নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। : হবিগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক ও সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক এম এ মান্নান সরকারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। : বিএনপির এই নেতা বলেন, ৩০ জানুয়ারি  থেকে আজ ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মোট গ্রেফতারের সংখ্যা  ৪৪০০  জনের অধিক। অন্যায়ভাবে গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অসত্য মামলা প্রত্যাহার করে নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানাচ্ছি। পুলিশ ও আওয়ামী সন্ত্রাসীদের নৃশংস হামলায় যে সকল নেতাকর্মী আহত হয়েছেন তাদের আশু সুস্থতা কামনা করছি। : :





প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

আসক নেতৃবৃন্দ বলেছেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে দ্রুত বিচার আইনে শাস্তি বাড়ানো হয়েছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
42250 জন